ঘুস না দেওয়ায় ভাতাবঞ্চিত সাত শতাধিক বয়স্ক-বিধবা-প্রতিবন্ধী

লোকসমাজ ডেস্ক॥ ঝিনাইদহ সদর উপজেলার সাগান্না ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বারের বিরুদ্ধে বয়স্ক, বিধবা ও অস্বচ্ছল প্রতিবন্ধীদের জন্য বরাদ্দকৃত সরকারি ভাতার অর্থ প্রদানে ঘুস দাবির অভিযোগের সত্যতা পেয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। জানা গেছে, ঘুষের টাকা না দেওয়ায় উপকারভোগীদের টাকা আত্মসাৎ করেছেন অভিযুক্ত মেম্বার। দুদকের জনসংযোগ দপ্তর এ তথ্য নিশ্চিত করেছে। দুদক জানিয়েছে, বুধবার (২৪ নভেম্বর) দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয়, যশোরের উপ-পরিচালক মো. নাজমুচ্ছায়াদাতের নেতৃত্বে একটি অভিযান পরিচালনা করেছে এনফোর্সমেন্ট টিম। জানা গেছে, দুদক টিম সরেজমিনে ইউনিয়ন পরিষদ ও সমাজসেবা কার্যালয় পরিদর্শন করে এবং দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের সঙ্গে দেখা করে অভিযোগ সংশ্লিষ্ট নথিপত্র সংগ্রহ করেছে। অভিযুক্ত মেম্বারের নাম প্রকাশ না করলেও দুদক জানায়, এনফোর্সমেন্ট টিম অভিযোগ প্রসঙ্গে ভাতা গ্রহণকারীদের সঙ্গে কথা বলেছে ও তাদের বক্তব্য শুনেছে। প্রায় সাত শতাধিক উপকারভোগী তাদের ভাতার অর্থ নগদ অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে পাননি বলে টিমকে জানিয়েছেন। এসময় উপজেলা সমাজসেবা অফিসার এনফোর্সমেন্ট টিমকে জানান, এই উপজেলাসহ দেশের বিভিন্ন উপজেলায় নগদের কারিগরি ত্রুটির জন্য কিছু উপকারভোগী তাদের অর্থ পাননি বলে এমন অভিযোগ এসেছে, যা সমাজসেসেবা অধিদপ্তরে জানানো হয়েছে। আরও জানা গেছে, দুদক এনফোর্সমেন্ট টিম প্রাথমিকভাবে অর্থ আত্মসাতের প্রমাণ পেয়েছে।অভিযানে প্রাপ্ত তথ্য-প্রমাণ যাচাইপূর্বক কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণের সুপারিশসহ কমিশন বরাবর প্রতিবেদন দাখিল করবে দুদক এনফোর্সমেন্ট টিম। এছাড়াও দুদক অভিযোগ কেন্দ্রে (হটলাইন-১০৬) অভিযোগের প্রেক্ষিতে ৪ দপ্তরে চিঠি পাঠিয়েছে।

ভাগ