পাইকগাছায় সামাজিক বনায়ন নিয়ে বিপাকে উপকারভোগীরা

পাইকগাছা (খুলন) সংবাদদাতা ॥ পাইকগাছায় কপোতাক্ষ নদের তীরে সামাজিক বনায়ন নিয়ে বিপাকে পড়েছেন উপকারভোগীরা। জানা যায়,উপজেলার কাটিপাড়ার মৌজার কপোতাক্ষ নদের তীরে পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) রাস্তায় ২০১৫ সালে বিভিন্ন প্রজাতির বৃক্ষ রোপণ করা হয়। জায়গাটি নদী খননের আগে ভূমিহীনদের মাঝে বন্দোবস্ত দেয়া হয়। ২০১৪ সালে নদী খননের ফলে নদীর পাশ দিয়ে খননকৃত মাটি ফেলায় পাউবোর রাস্তা গড়ে ওঠে। যেখানে উপজেলা বন বিভাগের সভার সিদ্ধান্ত মোতাবেক রেজ্যুলেশনের মাধ্যমে সামাজিক বনায়ন করার জন্য ৪৫জন উপকারভোগীর মাঝে অনুমোদন দেয়া হয়। যার সভাপতি এম.এম. হাসানুজ্জামান। ২০১৯ সালে প্রতিপক্ষ মীর সুন্দর আলীরা ওই গাছ কেটে ক্ষতিসাধন করেন। থানায় সুন্দর আলীসহ ৪জনের নামে মামলা হলে তারা কারাভোগ করেন। এ ঘটনার পর থেকে তারা ওই জায়গা দখল ও গাছপালা কাটার পাঁয়তারা করলে হাসানুজ্জামান উপজেলা নির্বাহী আদালতে অভিযোগ দিলে দ্বিতীয়পক্ষের বিরুদ্ধে অন্তর্বর্র্তীকালীন অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। এরপরও উপকারভোগীদের বিরুদ্ধে প্রতিপক্ষ সুন্দর আলী গং বিভিন্ন জায়গায় অভিযোগ ও নতুনভাবে বনায়ন করার কাজে বাধাগ্রস্ত করছেন। ফলে চরম বিপাকে পড়েছেন উপকারভোগীরা। এ ব্যাপারে সুন্দর আলী বলেন, তাদের বন্দোবস্তকৃত জমিতে বনায়ন করা হয়েছে। যা অবৈধ। এব্যাপারে বন কর্মকর্তা প্রেমানন্দ রায় জানান, বন বিভাগের বীজ ও চারা নিয়ে উপকারভোগীরা পাউবোর পাশে তা লাগিয়েছে।

ভাগ