স্ত্রীর সাবেক স্বামীর সঙ্গে কী কথা হলো নাসিরের?

লোকসমাজ ডেস্ক॥ অন্যের স্ত্রীকে ভাগিয়ে নিয়ে গিয়ে বিয়ে করেছেন ক্রিকেটার নাসির হোসেন! শুধু তাই নয়, সবকিছু জেনে-বুঝেই নাকি এই কাণ্ড ঘটিয়েছেন তিনি। নিজের মুখেই সে কথা স্বীকার করেছেন নাসির। গত রোববার (১৪ ফেব্রুয়ারি) বিশ্ব ভালোবাসা দিবসে তামিমা তাম্মি নামে এক কেবিন ক্রুকে বিয়ে করেন নাসির। কিন্তু এক সপ্তাহ পর রাকিব হাসান নামে একজন দাবি করছেন, তামিমা তার স্ত্রী। তাদের মধ্যে কোনো বিবাহ বিচ্ছেদ হয়নি। কোনো কিছু না জানিয়েই নাসিরকে বিয়ে করেছেন তামিমা। তাদের ঘরে ৮ বছরের একটি কন্যা সন্তানও রয়েছে। এ ঘটনায় উত্তরা পশ্চিম থানায় জিডিও করেছেন রাকিব হাসান। উত্তরা পশ্চিম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাও (ওসি) শাহ মো. আক্তারুজ্জামান ইলিয়াস গণমাধ্যমের কাছে জিডির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এরপরই রাকিবকে ফোন করেন নাসির।
স্ত্রী তামিমা তাম্মির সাবেক স্বামী রাকিব হাসানের সঙ্গে মোবাইলে যে কথোপকথন হয়েছে নাসিরের, সেটা এখন সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল। তাদের মধ্যে ৪ মিনিট ২২ সেকেন্ড কথা হয়। সেখানে নাসিরের সঙ্গে রাকিবের কী কথা হয়েছে, তা হুবহু তুলে ধরা হলো পাঠকদের জন্য।
নাসির: হ্যালো আসসালামু আলাইকুম। ভাইয়া আমি নাসির হোসেন বলতেছিলাম।
রাকিব: কোথা থেকে?
নাসির: ক্রিকেট প্লেয়ার নাসির হোসেন।
রাকিব: হ্যা কাকে চান।
নাসির: এটা রাকিবের নম্বর না? আপনি সেই রাকিব?
রাকিব: সেই রাকিব মানে?
নাসির: আমি আপনাকেই চাচ্চিলাম। ভালো আছেন আপনি?
রাকিব: জি আলহামদুলিল্লা
নাসির: আপনাকে কিছু কথা বলার জন্য ফোন দিছি। আপনি যা করলেন…..
রাকিব: কি করলাম?
নাসির: আপনি নাকি জিডি করছেন? এগুলো করে কি পাইতেছেন আপনি।আমারে আজকে বলবেন?
রাকিব: কিছু পাইতেছিনা। আপনি তামিমার সম্পর্কে কিছু জানেন?
নাসির: সব কিছু জানি।
রাকিব: কি কি জানেন?
নাসির: সবকিছু। ওর বাচ্চা আছে বিয়ে হইছিলো বয়ফ্রেন্ড ছিলো। জেনে শুনেই বিয়ে করছি। আপনি চান না তামিমা হ্যাপি থাক।
রাকিব: আমি? তামিমা তো হ্যাপিই আছে। আমি তো আর কোন ডিস্টার্ব করতেছিনা।
নাসির: আপনি জিডি করছেন।
রাকিব: জিডি করবো না? তামিমা তো আামকে ক্লিয়ার পেপার দেয়নি। বুঝতে পারছেন না। তামিমার সাথে আপনার যখন কথা হয়, তখন তামিমাকে বললাম নাসির কে? সে বললো আমার ফ্রেন্ড। আমার বাসায় আসছিলো বার্থডেতে। বাসায় আসে যায় এজলাইক ফ্রেন্ড। আপনি কথা শুনেন। আপনি জানেন। আপনি যেনে শুনে আরেক জনের বউকে বিয়ে কইরা ফালাইছেন। তামিমা তো আমার সাথে বসবে। বলতে পারতো..রাকিব তোমাকে ভালো লাগে না চলে যাবো… সমস্যা নাই। তুমি বসো সব পেপার ক্লিয়ার করো। কাটছিট করো সমস্যা নাই। আমারো একটা পেপার দরকার আছেনা? ভবিষ্যতে আমিও তো বিয়ে করবো তাই না? সেগুলো কিছু না করেই আপনার সাথে বিয়ে করলো?
নাসির: আপনি মনে কইরেন না সেই লেটার না দেখে বিয়ে করছি।
রাকিব: আপনি কি দেখছেন জানি না। আমি ২০১১ তে বিয়ে করছি। আমার মেয়ের বয়স ৮ বছর। তামিমার জন্য কি করছি। কোন হিস্ট্রি আপনি জানেন না। এখন আপনি যদি বলেন আমি চাই না তামিমা সুখি হোক। আপনি চান নাই আমি আর তামিমা সুখি থাকি? জানেন একজনের মেয়ে আছে সংসার আছে তো আপনি সেটা কি ভাবে করলেন?
নাসির: আপনার সাথে তো সংসার নাই..বুঝতে পারছেন না? ভাই আমি এতো ঘুরাইপ্যাচাই কথা বলতে পারি না। শুধু এতোটুকু জানতে চাই…আপনি কি চান না তামিমা হ্যাপি থাক? যদি চান তাহলে এটা নিয়ে আর কোন কিছুই কইরেন না।
রাকিব: তামিমা হ্যাপি থাকবে কিভাবে?
নাসির: যদি তামিমা হ্যাপি থাকতো তাহলে সে আপনার সাথেই থাকতো।
রাকিব: আর আপনি আমাকে ফোন দিছেন কেন? আমি তো আপনাকে চিনি না। ফোন দিবে তামিমা আমাকে..
নাসির: তামিমা ফোন দিবে কেন?
রাকিব: অবশ্যই তামিমা ফোন দিবে। সমস্যা তো তামিমারই। নাকি আপনার এখন? আপনি যে বাসায় থাকতেছেন সেই বাসার ফার্নিচারগুলোও আমার।
নাসির: তাই? আমি জানি সবকিছুই জানি।
রাকিব: সে যখন করোনায় আগেও আমার কাছ থেকে গেছে তখনও সে আমার সাথে…… গেছে।
নাসির: আচ্ছা আচ্ছা ভাই আমার কথাগুলো শুনেন।
রাকিব: তো আপনার সে কেমনে গার্লফ্রেন্ড হলো? ভাই আমি এখন নামাজে যাবো। আপনার সাথে কথা বলতে পারতেছি না এই জন্য স্যরি।

ভাগ