প্রেমিকার হাত থেকে বাঁচতে এল ক্ল্যাসিকোয় গোল!

লোকসমাজ ডেস্ক॥ সৌদি আরবের কিং ফাহাদ স্টেডিয়ামে ফেদে ভালভার্দের গোলেই বার্সেলোনার বিপক্ষে এল ক্ল্যাসিকোতে ৩-২ ব্যবধানে জয় নিয়ে বাড়ি ফিরলো রিয়াল মাদ্রিদ। কিন্তু জানেন কী ফেদে ভালভার্দের এই গোলের পেছনে রয়েছে দারুণ একটি রহস্য। যা শুনলে চোখ কপালে উঠে যেতে বাধ্য হবে যে কারো। ফেদে ভালভার্দে গোল করেছেন তার প্রেমিকার কাছ থেকে বাঁচার জন্য। সেটা আবার কেমন? গোল করে প্রেমিকা, স্ত্রী কিংবা প্রিয়জনকে উৎসর্গ করতে হামেশাই দেখা যায়। কিন্তু প্রেমিকার হাত থেকে বাঁচতে গোল! বলা ভালো প্রেমিকের তৈরি করা খাবারের থেকে বাঁচতে গোল! ইতিপূর্বে এমন ঘটনার কথা কেউ কখনও শুনেছেন বলে মনে হয় না। এমনই ছবি দেখা গেল রিয়াল মাদ্রিদের সেন্ট্রাল ফেদে ভালভার্দের ক্ষেত্রে। স্প্যানিশ সুপার কাপে সেমিফাইনালে বার্সেলোনার বিপক্ষে রিয়াল মাদ্রিদের ৩-২ গোলে জয়ের পর বিষয়টি বুঝতে পারেন ফুটবলপ্রেমীরা।
ফেদে ভালভার্দের প্রেমিকা মিনা বেনিনো। সোশ্যাল মিডিয়ায় দুজনই সম্পর্ক নিয়ে খোলামেলা। মিন বেনিনো পেশায় একজন রিপোর্টার। তবে তিনি ফুটবল ভক্ত। রিয়াল মাদ্রিদের ম্যাচ থাকলে প্রেমিকার কাছ থেকে বেশ চাপে থাকেন ভালভার্দে। কারণ গোল না করতে পারলেই তাকে প্রেমিকার হাতের রান্না খেতে হবে। সম্প্রতি হোয়াটসঅ্যাপে ফেদে ভালভার্দেকে পাঠানো বার্তার স্ক্রিনশট তিনি পোস্ট করেন টুইটে। সেখানে লেখা, ‘মাঠে নেমে যদি গোল করতে না পার, তাহলে প্রতিদিন আমার হাতের রান্না খেতে হবে। একটু ভেবে দেখো, সেটা কেমন হবে?’ এই এক লাইনের মাধ্যমেই বোঝা যাচ্ছে মিনা রান্নায় কতটা দক্ষ! বৃহস্পতিবারের ম্যাচে শেষ মুহূর্তে গোল করে দলকে জেতান ভালভার্দে। ৯৮ মিনিটের মাথায় ২-২ থেকে তিনি রিয়াল মাদ্রিদের পক্ষে জয়সূচক গোলটি করে ব্যবধান ২-৩ করে ফেলেন। সে সঙ্গে রিয়াল মাদ্রিদ পৌঁছে গেলো স্প্যানিশ সুপার কাপের ফাইনালে। রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে বাকি দুই গোল করেন ভিনিসিয়ুস জুনিয়র এবং করিম বেনজেমা।
সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও ভাইরাল হয়। যেখানে দেখা যায়, নিজের ঘরে বসে এল ক্লাসিকো দেখছেন মিনা। ভালভার্দের জয়সূচক গোলের পর তিনি সোফার উপর লাফিয়ে ওঠেন। এরপর জার্সি খুলে তিনি ঘোরাতে থাকেন। আর্জেন্টিনার বাসিন্দা মিনা ২০১৯ সাল থেকে মাদ্রিদে বসবাস করছেন। তিনি রিভার প্লেট ক্লাবেরও সমর্থক। গত বছর কোপা লিবার্তোদোরেস সেমিফাইনালে পালমেইরাসের মুখোমুখি হয় আর্জেন্টাইন ক্লাবটি। সম্প্রতি ‘লেট দ্য পিপল বিলিভ’ লেখা একটি লাইন নিজের ডান হাতের বাহুতে ট্যাটু করিয়েছেন মিনা। পাশাপাশি একটি তারিখও নিচে লেখা আছে, ২০১৮ কোপা লিবার্তোদোরেস ফাইনালে যেদিন বোকা জুনিয়র্সকে হারিয়ে রিভার প্লেট শিরোপা জিতল সেই তারিখটি। ভালভার্দে ও তার প্রেমিকার এই ধরনের খুনসুটি এখন আরও দেখতে মরিয়া সমর্থকরা। তাদের নজর এখন এই যুগলের সোশ্যাল মিডিয়ার দিকেই বেশি।

ভাগ