তালেবান সরকারের উপ-প্রধানমন্ত্রী বারাদার কোথায়?

লোকসমাজ ডেস্ক॥ আফগানিস্তানে তালেবান ঘোষিত নতুন সরকারের উপ-প্রধানমন্ত্রী মোল্লা আব্দুল গানি বারাদারকে জনসম্মুখে দেখা যাচ্ছে না বেশ কিছুদিন। গত রোববার (১২ সেপ্টেম্বর) কাবুলে কাতারি পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে আফগানদের মন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকেও ছিলেন না তিনি। এর মধ্যেই খবর ছড়িয়েছে, অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্বের জেরে গোলাগুলিতে নিহত হয়েছেন তালেবানের অন্যতম এ শীর্ষ নেতা। কিন্তু সেই খবরকে পুরোপুরি গুজব বলে দাবি করেছে সশস্ত্র গোষ্ঠীটি। খবর রয়টার্সের। তালেবান মুখপাত্র সোহেল শাহীন এক টুইটে জানিয়েছেন, তাদের রাজনৈতিক দপ্তরের সাবেক প্রধান মোল্লা বারাদারের মৃত্যুর খবর পুরোপুরি ভুয়া ও ভিত্তিহীন। এক অডিওবার্তায় দলীয় সংঘর্ষ বা হতাহতের খবর অস্বীকার করেছেন বারাদার।
রয়টার্স জানিয়েছে, বারাদার জীবিত প্রমাণে একটি ভিডিও ফুটেজও প্রকাশ করেছে তালেবান। এতে কান্দাহারে বৈঠক করতে দেখা গেছে তাকে। তবে ভিডিওর সত্যতা সম্পর্কে নিশ্চিত হতে পারেনি বার্তা সংস্থাটি। এর আগে চলতি সপ্তাহে খবর ছড়িয়ে পড়ে, হাক্কানি নেটওয়ার্কের সদস্যদের সঙ্গে বারাদারের সমর্থকদের সংঘর্ষ হয়েছে। অবশ্য তালেবান বরাবরই এ ধরনের অভ্যন্তরীণ বিরোধের খবর অস্বীকার করে আসছে। তালেবান গত ১৫ আগস্ট কাবুল দখলের পর গোষ্ঠীর শীর্ষ নেতা মোল্লা হায়বাতুল্লাহ আখুনজাদাকেও আর প্রকাশ্যে দেখা যায়নি। অবশ্য গত সপ্তাহে নতুন সরকার ঘোষণার পর জনগণের উদ্দেশ্যে তার বিবৃতি প্রকাশ করা হয়েছে। তালেবান নেতাদের মৃত্যুর খবর গোপন রাখা বা এ সংক্রান্ত গুজব ছড়িয়ে পড়া নতুন কিছু নয়। গোষ্ঠীটির প্রতিষ্ঠাতা মোল্লা ওমরের মৃত্যুর প্রায় দুই বছর পর ২০১৫ সালে এ খবর প্রথমবার স্বীকার করা হয়েছিল।

ভাগ