টাকার চেয়েও বেশি সুখ যে ৩ বিষয়ে

লোকসমাজ ডেস্ক॥ টাকা দিয়ে সুখ বা আনন্দ কেনা যায় না। অনেকেই এই কথাটির সঙ্গে একমত আবার অনেকেই ভিন্ন মত পোষণ করেন। কারণ অনেকেই মনে করেন টাকা থাকলেই আনন্দ আছে। টাকা না থাকলে কোনো আনন্দ নেই। তবে এ বিষয়ে মনস্তত্ত্ববিদরা কী বলছেন?
এক সমীক্ষা অনুযায়ী, টাকা থাকা মানেই জীবনে সুখ বা আনন্দ থাকবে তা নয়। এই সমীক্ষায় উঠে এসেছে অন্য তিনটি বিষয়। যা মানুষকে অর্থের চেয়েও বেশি আনন্দ দেয়। তেমনই বলছে গ্রেটার গুড সায়েন্স সেন্টার নামক গবেষণাকারী সংস্থার সমীক্ষা। জেনে নিন সেই তিনটি বিষয় সম্পর্কে-
সুসম্পর্ক
সমীক্ষায় উঠে এসেছে, সবার জীবনেই সুসম্পর্কের গুরুত্ব অনেক। দাম্পত্য জীবনে যারা খুশি থাকেন তাদেরকে টাকার চেয়ে সুসম্পর্ক বেশি আনন্দ দেয়। অর্থনৈতিক অভাবও সেখানে বিশেষ চাপ সৃষ্টি করে না।দক্ষিণ আমেরিকার বেশ কয়েকটি দেশে সমীক্ষা চালিয়ে এই দাবির সপক্ষে অনেকগুলো উদাহরণ উঠে এসেছে। দেখা গেছে, শুধুমাত্র ভালবাসার কারণেই মানুষ অর্থের অভাবের মধ্যেও বেশ আনন্দে আছেন।
শরীরচর্চা
শরীরচর্চা করার ফলেও মনে সুখ আসে। কারণ ব্যায়াম করলে মন ভালো রাখার হরমোনগুলোর ক্ষরণ বাড়ে। তবে সেই ভালো থাকার পরিমাণ কতটা? তাকে কি টাকার অঙ্কে ব্যাখ্যা করা যাবে? সমীক্ষা এই প্রশ্নেরও উত্তর দিয়েছে।
বলা হয়েছে, গড়ে একজন আমেরিকার নাগরিকের বার্ষিক বেতন যদি ভারতীয় অঙ্কে ২০ লাখ টাকা হয় তাহলে তিনি যতটা আনন্দ পাবেন ঠিক তেমন আনন্দই প্রতিদিন শরীরচর্চা করলে হয়।
যাতায়াতের সময়
সমীক্ষায় উঠে এসেছে, অফিস বা কর্মক্ষেত্রের যাতায়াতের সময় কমলে, মানুষের মন ভালো থাকে। আর সময় বাড়লে ঠিক উল্টোটি ঘটে। এই বিষয়টিকেও সংখ্যায় ব্যাখ্যা করা হয়েছে।
কর্মক্ষেত্র থেকে যাতায়াতের সময় ২০ মিনিট বেড়ে গেলে মানুষের ঠিক ততটা বিরক্ত লাগে, যতটা বিরক্ত লাগে বার্ষিক বেতন ১৯ শতাংশ কমে গেলে।
মোট কথা হলো, টাকা যে জীবনে আনন্দের একমাত্র উত্স নয়। সেটিই পরিসংখ্যানের মাধ্যমে দেখিয়েছে সমীক্ষাটি। যদিও অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিতে মনে আনন্দ বাড়ে।
তবে সবচেয়ে বেশি আনন্দ এই ৩ জিনিসেই লুকিয়ে আছে। চাইলে পরখ করে দেখতে পারেন। যদিও সুখের বিষয়টি একেকজনের কাছে ভিন্নরকম। তবে টাকার সঙ্গে সুখী হওয়ার সম্পর্ক নেই সেটিই প্রমাণ করেছে এই সমীক্ষা।

ভাগ