‘সন্ত্রাস দমনের উপায়ে’ পুতিনের সাথে আসাদের বৈঠক

লোকসমাজ ডেস্ক॥ সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদ রাশিয়ার মস্কোতে দেশটির প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সাথে এক বৈঠক করেছেন। সোমবার রাতে তারা এই বৈঠক করেন। গত বছর জানুয়ারিতে সিরিয়ার রাজধানী দামেস্কে অনুষ্ঠিত সম্মেলনের পর ভ্লাদিমির পুতিন ও বাশার আল-আসাদের মধ্যে এটিই প্রথম বৈঠক। সিরিয়ার রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা সানায় প্রকাশিত খবরে জানানো হয়, দুই নেতা বৈঠকে ‘সন্ত্রাস মোকাবিলা ও সন্ত্রাসী সংগঠনগুলোর দখলে থাকা ভূমি সম্পূর্ণভাবে মুক্ত করার’ বিষয়ে আলোচনা করেন। অপরদিকে রুশ প্রেসিডেন্টের দফতর ক্রেমলিন থেকে মঙ্গলবার প্রকাশিত বিবৃতিতে জানানো হয়, বৈঠকে আসাদকে পুতিন বলেন, জাতিসঙ্ঘের সিদ্ধান্ত ছাড়া সিরিয়ায় বিদেশী সৈন্য অবস্থানকে তিনি দেশটির সংহতির জন্য বাধা হিসেবে মনে করেন।
পুতিন বলেন, ‘আমার দৃষ্টিতে প্রধান সমস্যা হলো জাতিসঙ্ঘের অনুমোদন ও আপনার অনুমতি ছাড়া দেশের নির্দিষ্ট কিছু অঞ্চলে বিদেশী সামরিক বাহিনীর অবস্থান।’ ক্রেমলিনের বিবৃতি অনুযায়ী, পুতিন রাশিয়া ও সিরিয়ার সামরিক বাহিনীর যৌথ প্রচেষ্টায় সিরিয়ার ‘দখলকৃত ভূমি মুক্ত’ করার বিষয়ে প্রশংসা করেন। তিনি বলেন, ‘সন্ত্রাসীরা বিপুলভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে এবং আপনার নেতৃত্বে সিরীয় সরকার ৯০ ভাগ ভূমি নিয়ন্ত্রণ করছে।’ পাশাপাশি গত মে মাসে চতুর্থবারের মতো প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জয়ী হওয়ায় বাশার আল-আসাদকে অভিনন্দন জানান ভ্লাদিমির পুতিন। ক্রেমলিন জানায়, সিরিয়ায় মানবিক সহায়তা ও ‘সন্ত্রাস দমনে’ অবদানের জন্য বাশার আল-আসাদ রুশ প্রেসিডেন্টকে ধন্যবাদ জানান। ২০১১ সালে আরব বসন্তের জেরে সিরিয়ায় শুরু হওয়া গণবিক্ষোভকে বাশার আল-আসাদ প্রশাসন সামরিক উপায়ে দমন করতে গেলে দেশটিতে গৃহযুদ্ধ শুরু হয়। শুরুতে আসাদবিরোধীরা বিভিন্ন স্থানে সফলতা পেলেও রাশিয়া ও ইরানের সহায়তায় বিরোধীদের নিয়ন্ত্রণে থাকা ভূমি দখল করে নেয় সিরিয়ার সরকারি বাহিনী। বর্তমানে উত্তরে ইদলিবকেন্দ্রীক অল্প কিছু অঞ্চল আসাদবিরোধী বিদ্রোহীদের দখলে রয়েছে।
সূত্র : আলজাজিরা

ভাগ