মালয়েশিয়ায় ভারতীয় ভেরিয়ান্ট শনাক্ত, লকডাউন ঘোষণা

লোকসমাজ ডেস্ক॥ মালয়েশিয়ায় ভারতীয় করোনার ভেরিয়ান্ট বা ধরণ শনাক্ত হওয়ার দীর্ঘ সময় পর দেশটিতে সংক্রমণ আশঙ্কাজনক হারে বাড়ছে। এমন পরিস্থিতিতে আবারো মুভমেন্ট কন্ট্রোল অর্ডার এমসিও ৩.০ লকডাউন ঘোষণা করেছে দেশটির সরকার। শুক্রবার থেকে ২০ মে পর্যন্ত দেশটিতে এমসিও ৩.০ লকডাউন চলবে। বৃহস্পতিবার মালয়েশিয়ার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, আগের এমসিও থেকে এবারের এমসিও কিছুটা পরিবর্তন করা হয়েছে। এক জেলা থেকে অন্য জেলায় ভ্রমণ নিষিদ্ধ করা হয়েছে। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বের হতে নিরুৎসাহিত করা হয়েছে। অফিস ও শিল্প কারখানা স্বাস্থ্যবিধি ও স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং সিস্টেম মেনে চালু থাকবে। গুরুত্বপূর্ণ অর্থনীতিখাতগুলো এসওপি মেনে চালু রাখার পরামর্শ দেয়া হয়েছে। কুয়ালালামপুর ও সেলেঙ্গর প্রদেশসহ মোট ছয়টি জেলায় এই এমসিও বহাল থাকবে। পেটালিং জায়া ওসিপিডির মোহামাদ ফখরুদ্দিন আবদুল হামিদ জানান, পেটালিং জায়া পুলিশ যেসব পয়েন্টে রোডব্লক বা রোড বন্ধ কটে চেকিং করা হবে ওইগুলো হচ্ছে সুনগাই বুলোহ টোল প্লাজা, কোটা দামসারা টোল প্লাজা, দামসানরা টোল প্লাজা ও সুবাং টোল প্লাজা। তিনি আরো বলেন, আমরা সমাজের সকল স্তরের সহযোগিতা আশা করি, যাতে ভাইরাসের বিস্তার রোধ করা যায়। সেলানগরের ছয়টি জেলা- পেট্রলিং, গম্বাক, হুলু ল্যাঙ্গাট, ক্লাং, সেপাং ও কুয়ালা লঙ্গাত ৬ মে থেকে ১৭ মে পর্যন্ত এমসিওর অধীনে ও কুয়ালালামপুর ৭ মে থেকে ২০ মে পর্যন্ত এমসিও ৩.০ লকডাউন বহাল থাকবে। চলমান লকডাউনে শর্তসাপেক্ষে রেস্টুরেন্ট, ফুড ট্রাক ও ফুটপাত দোকান খোলা থাকছে। উল্লেখ্য যে পহেলা এপ্রিল থেকে কোভিড-১৯ সংক্রমণ পরিস্থিতি মালয়েশিয়ায় আশঙ্কাজনকভাবে বাড়তে শুরু করায় দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের পরামর্শে এ ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

ভাগ