যশোরে আটক যুবদলের সম্পাদক রানাসহ তিন নেতার জামিনে মুক্তি

স্টাফ রিপোর্টার॥ গতকাল সোমবার মারপিটের একটি মামলায় আটকের কয়েক ঘণ্টা পর আদালত থেকে জামিনে মুক্তি পেয়েছেন যশোর জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক আনসারুল হক রানাসহ তিন নেতা। জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মো. সাইফুদ্দীন হোসাইন তাদের জামিন আবেদন মঞ্জুর করেন। এর আগে দুপুরে শহরের মাইকপট্টি থেকে উল্লিখিত তিন নেতাসহ মামলার ৪ আসামিকে আটক করে পুলিশ।
মামলার তদন্ত কর্মকর্তা কোতয়ালি থানা পুলিশের এসআই ইবনে খালিদ হোসেন জানান, গতকাল দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে শহরের মাইকপট্টি থেকে মামলার এজাহারভুক্ত আসামি জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক আনসারুল হক রানা, যুগ্ম সম্পাদক আরিফুল ইসলাম আরিফ, সহকারী সম্পাদক আনোয়ার পারভেজ ও ছাত্রদল কর্মী জুবায়ের আহমেদ মারুফকে আটক করেন। গত ২৯ এপ্রিল শহরের ষষ্টিতলার বাসিন্দা নওশের আলীর ছেলে নজরুল ইসলাম তার ভাই নুর ইসলাম রুবেলকে মারপিট ও কুপিয়ে জখমের অভিযোগ এনে তাদের বিরুদ্ধে মামলাটি করেছিলেন। আটকের পর উল্লিখিত ৪ জনকে আদালতে সোপর্দ করা হয়।
যশোর জেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক দেলোয়ার হোসেন খোকন বলেন, আটক যুবদল ও ছাত্রদল নেতাকর্মীর জামিনের জন্য তাদের আইনজীবী দেবাশীষ দাস আদালতে আবেদন জানান। এ সময় বিচারক তিন জনের জামিন মঞ্জুর করেন। এরা হলেন, আনসারুল হক রানা, আরিফুল ইসলাম আরিফ ও আনেয়ার পারভেজ। আটক অপর ছাত্রদল কর্মী জুবায়ের আহমেদ মারুফের জামিন আবেদন মঞ্জুর হয়নি।
এদিকে রানাসহ জেলা যুবদল নেতৃবৃন্দের গ্রেফতারের সংবাদে যশোরের বিভিন্ন উপজেলা ও পৌর যুবদলের বিপুল সংখ্যক নেতা-কর্মী তাৎক্ষণিক আদালত চত্বরে ভিড় জমায়। এসময় ছাত্রদল ও স্বেচ্ছাসেবক দলের জেলা পর্যায়ের নেতাদেরও সেখানে দেখা যায়। পরে বিকেলে যুবদলের তিন নেতা জামিনে মুক্তি পেয়ে আদালত থেকে বেরিয়ে এলে উপস্থিত নেতা-কর্মীরা মহান সৃষ্টিকর্তার দরবারে শুকরিয়া আদায় করেন।

ভাগ