গরমে শিশুর ঈদের পোশাক কেনার সময় যা খেয়াল রাখবেন

লোকসমাজ ডেস্ক॥ আর মাত্র কয়েকদিন পরেই ঈদুল ফিতর। দেশের সব স্থানেই কমবেশি ঈদের কেনাকাটায় ব্যস্ত সবাই। করোনাকালে সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে কেনাকাটার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তাই এ সময় ছোট-বড় সবারই সুরক্ষিত থেকে তবেই ঈদের কেনাকাটা করতে হবে।
ঈদ মানেই বড়দের চেয়ে ছোটবের আনন্দ উল্লাস বেশি তাকে। নতুন জামা, জুতো পাওয়ার খুশিতে ছোট্ট মনে খুশির শেষ থাকে না। তাই সবাই চায় তার ঘরের ছোট্ট শিশুটির ঈদের পোশাক অনন্ত সবার আগে কেনা হোক।
এবার যেহেতু প্রচণ্ড গরমে ঈদ হবে, তাই শিশুর জন্য আরামদায়ক পোশাক কিনতে হবে। অনেক ড্রেস আছে, যেগুলো দেখতে অনেক সুন্দর কিন্তু মেটেরিয়াল ভালো নয়। এমন পোশাক পরলে শিশুরা অস্বস্তিবোধ করে থাকে। তাই এ বিষয়ে নজর রেখে তবেই শিশুর ঈদের পোশাক নির্বাচন করতে হবে।
ঈদের অনুষঙ্গ পোশাক। ঈদ পোশাকে প্রধান্য পায় পরিবারের শিশুরা। শিশুর পোশাকে কেউ গুরুত্ব দেন পোশাকের নকশা আর ফ্যাশন ট্রেন্ডে আবার কারও বিবেচনায় থাকে শিশুর স্বস্তি ও পোশাকের রঙে। তবে শিশুর পছন্দকেও গুরুত্ব দিতে হবে।
এবারের ঈদে দেশীয় ফ্যাশন হাউজ ও অনলাইন বিভিন্ন শপে শিশুদের ঈদ পোশাকে তাই গুরুত্ব পেয়েছে ফেব্রিকস। বাহারি ডিজাইনের সুতি, নেট, হাফ সিল্ক ও লিলেনের পোশাক পাওয়া যাচ্ছে শিশুদের জন্য। নেটের উপর কারুকাজ করা পোশাকের পাশাপাশি অ্যাম্ব্রোয়েডারি করা পোশাকও প্রাধান্য পেয়েছে।
মেয়েশিশুদের জন্য সুতি ও নেটের পোশাকের উপর সুতা, পুঁতি বা সিকুইন কাজের বাহারি ডিজাইনের পোশাক মিলছে। পোশাকের মোটিফে থাকছে ফুলেল নকশা ও কার্টুনের প্রাধান্য।
ঈদ পোশাকের তালিকায় মেয়েশিশুদের নানা কাটের গাউন, টপ ও শর্ট স্কার্টও দেখা যাচ্ছে। ব্লক ও অ্যাম্ব্রোয়েডারি করা সালোয়ার কামিজ ও লং স্কার্টও কিনতে পারেন শিশুর জন্য।
এবারের ঈদে ছেলেশিশুদের পোশাকের ক্ষেত্রে ফতুয়া, হাফ শার্ট, টি-শার্ট এবং কাজ করা পাঞ্জাবির সঙ্গে নকশা করা কটি কিনতে পারে। এ ছাড়াও শিশুদের একরঙা শার্টের সঙ্গে ছোট্ট বো-টাইও পাবেন।
গরমে শিশুর পোশাক কেনার সময় রঙের বিষয়েও প্রাধান্য দিতে হবে। হালকা যেকোনো রং আপনি বেছে নিতে পারেন। কারণ হালকা রংগুলো পরলে গরমে শরীর ঠান্ডা থাকে, বেশি ঘামে না। বড়-ছোট কারও জন্যই গরমে গাঢ় পোশাক পরা উচিত নয়।
শিশুর ফ্যাশনের পাশাপাশি স্বস্তির দিকটাও মাথায় রেখে পোশাক কিনুন। পোশাকের মাপ, নকশা ও ফেব্রিকস শিশুর জন্য আরামদায়ক হবে কি-না সেটা আগে ভাবুন।
মহামারির এই সময় যদি মার্কেটে না যেতে চান; তাহলে ঘরে বসেই অনলাইনে পছন্দসই পোশাকগুলো অর্ডার দিয়ে কিনতে পারেন। সেক্ষেত্রে অবশ্যই পোশাকের মেটেরিয়াল, সাইজ, রাং সব বিষয় ঠিক আছে কি-না, তা যাচাই-বাছাই করে কিনতে হবে।

ভাগ