ফখরের ১৯৩ সত্ত্বেও পাকিস্তানের হার

লোকসমাজ ডেস্ক॥ দ্বিতীয় ইনিংসে রেকর্ড গড়া ব্যাটিং করেও দলকে জেতাতে পারলেন না পাকিস্তানি ওপেনার ফখর জামান। তার ১৯৩ রান সত্ত্বেও দ্বিতীয় ওয়ানডেতে দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে ১৭ রানে হেরে গেছে সফরকারীরা। অন্যদিকে তিন ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচ জিতে সমতা ফিরিয়েছে প্রোটিয়ারা।
রোববার (৪ এপ্রিল) জোহানেসবার্গের ওয়ান্ডারার্স স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত এ ম্যাচে টস হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ৬ উইকেট হারিয়ে ৩৪১ রান জড়ো করে দক্ষিণ আফ্রিকা। পাহাড়সম এই রান এসেছে ৪টি অর্ধশতকে।
প্রোটিয়াদের পক্ষে সর্বোচ্চ ৯২ রান করেন অধিনায়ক টেম্বা বাভুমা। ১০২ বলের মোকাবেলায় ৮ রানের আক্ষেপ নিয়ে সাজঘরে ফেরেন তিনি। এছাড়া কুইন্টন ডি কক করেন ৮৬ বলে ৮০ রান। ঝড়ো ইনিংস খেলেন রাসি ভন ডার ডুসেন ও ডেভিড মিলার। ডুসেন ৩৭ বলে করেন ৬০ রান, ৬টি চার ও ৩টি ছক্কার সহায়তায়। আর ৩টি করে চার-ছক্কা হাঁকিয়ে ২৭ বলে ৫০ রান করে অপরাজিত থাকেন কিলার মিলার।
এই চার ব্যাটসম্যানের ব্যাটে চড়ে দক্ষিণ আফ্রিকা দাঁড় করে পাহাড়সম স্কোর। পাকিস্তানের পক্ষে অন্যরা খরুচে বোলিং করলেও বেশ সফল ছিলেন হারিস রউফ, ৫৪ রানের খরচায় শিকার করেন ৩টি উইকেট।
পরে জয়ের লক্ষ্যে খেলতে নেমে দলীয় ৭ রানেই ইমাম উল হককে হারিয়ে ফেলে পাকিস্তান। এরপর নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকলে চাপে পড়ে সফরকারীরা। তবে বুক চিতিয়ে লড়ে গেছেন এক ফখর জামান। শেষ ওভারে সাজঘরে ফেরার আগে ১৫৫ বলের মোকাবেলায় ১৯৩ রান করেন এই ওপেনার, ১৮টি চার ও ১০টি ছক্কার সাহায্যে।
লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে দেশের হয়ে সবচেয়ে বড় ইনিংসের রেকর্ড গড়া ফখর অবশ্য দলকে জেতাতে পারেননি। কেননা তাকে যে যোগ্য সঙ্গই দিতে পারেননি আর কেউই। দলের পক্ষে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান ছিল বাবর আজমের ৩১ রান আর তৃতীয় সর্বোচ্চ আসিফ আলীর ১৯। যাতে নির্ধারিত ৫০ ওভার শেষে ৯ উইকেট হারিয়ে ৩২৪ রান তুলতে পারে পাকিস্তান। হেরে যায় মাত্র ১৭ রানে।
প্রোটিয়াদের পক্ষে এনরিখ নর্টজে ৩টি উইকেট শিকার করেন। এছাড়া ফেহলুকায়ো ২টি এবং রাবাদা, এনগিদি ও শামসি শিকার করেন একটি করে উইকেট। তবে আক্ষেপ জাগানো ম্যাচে সেরা খেলোয়াড়ের খেতাব জিতেছেন ফখর জামানই।

ভাগ