ক্রসিংয়ের গেট না নামায় যশোরে ট্রেন ও ট্রাক সংঘর্ষে হতাহত ২, গেটম্যান পলাতক

স্টাফ রিপোর্টার॥ ক্রসিংয়ের গেট না নামায় যশোরে গতকাল রাতে যাত্রীবাহী ট্রেনের সাথে ট্রাকের সংঘর্ষে দুই জন হতাহত হয়েছেন। সন্ধ্যা রাত সাতটার কিছু পরে মুড়–লী রেলক্রসিংয়ে এ ঘটনা ঘটে। ট্রেনের ধাক্কায় কয়েকশ গজ দূরে ছিটকে পড়া ট্রাকটি পুরোপুরি বিধ্বস্ত হয়েছে। তবে ভয়াবহ দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেয়েছেন ট্রেনের যাত্রীরা। ঘটনার পর থেকে পলাতক ওই ক্রসিংয়ের গেটম্যান । রেলওয়ে কর্মকর্তারা তদন্ত করছেন কর্তব্যে অবহেলা, না কি অন্য কোন কারণে দুর্ঘটনা পাশের সিগন্যাল গেটটি নামেনি বলে জানিয়েছেন যশোর অঞ্চলের রেল্ওয়ে বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী ওয়ালিউল হক। এ ঘটনায় রাত পোনে আটটা থেকে রাত ১১টায় এ সংবাদ লেখা পর্যন্ত খুলনার সাথে দেশের রেল যোগাযোগ বন্ধ ছিল। এদিকে গুরুত্বপূর্ণ যশোর শহরের মুড়–লী থেকে চাঁচড়া মোড় পর্যন্ত বেনাপোল ও খুলনায় যাওয়ায় এ সড়কটি দীর্ঘক্ষণ বন্ধ থাকায় সড়কের দুই পাশে বাস ও ট্রাকের দীর্ঘ জট তৈরি হয়। হতাহত দুই জনের মধ্যে নিহত হয়েছেন ট্রাকের চালক আবকর আলী (৪৫)। তার বাড়ি চাপাইনবাবগঞ্জে। আহত হয়েছেন হেলপার। তার নাম জানা যায়নি। তাকে মারাত্মক আহত অবস্থায় যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতাল থেকে খুলনায় স্থানান্তর করা হয়।
যশোরের রেলস্টেশন মাস্টার সাইদুজ্জামান জানান, রাজশাহী থেকে ছেড়ে আসা কপোতাক্ষ এক্সপ্রেস মুড়–লী ক্রসিং পার হওয়ার সময় একটি কয়লাবাহী ট্রাক এসে সামনে পড়ে। সংঘর্ষে ট্রাকটি কয়েকশ’ গজ ছিটকে পড়ে বিধ্বস্ত হয়। স্থানীয় চাচঁড়া পুলিশ ফাাঁড়ির ইনচার্জ পরিদর্শক রোকিবুজ্জামান জানান, যাত্রীবাহী ট্রেন কপোতাক্ষ এক্সপ্রেস রাত ৭টা ৫০ মিনিটে যশোর স্টেশন থেকে খুলনার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়। মুড়ালি রেলক্রসিং অতিক্রম করার সময় নওয়াপাড়া থেকে আসা কয়লাবোঝাই ট্রাকটি গেট ভেঙ্গে রেললাইনে উঠে পড়ে। এতে ঘটনাস্থলে ট্রাকের চালক নিহত ও হেলপার আহত হন। চুর্ণ-বিচুর্ণ হয়ে যায় ট্রাকটি। দুর্ঘটনায় হতাহতদের বাড়ি চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায় বলে জানা গেছে। এদিকে রেলওয়ের নির্বাহী প্রকৌশলী ওয়ালিউল হক বলেন, গেট নামানো ছিল ও ছিল না দুই রকম বক্তব্য পাওয়া যাচ্ছে। এ জন্য তদন্ত করা হচ্ছে। তবে গেটম্যান বিকাশ রঞ্জনকে পাওয়া যায়নি। ধারণা করা হচ্ছে তিনি পালিয়েছেন। প্রকৌশলী ওয়ালিউল আরও জানান, ট্রেনের চালক এবি সিদ্দিক ও আসাদুল হক তাকে জানিয়েছেন, গেটম্যানে সবুজ সংকেত পেয়ে তারা ওই ক্রসিং পার হচ্ছিলেন। এসময় ট্রাকটি এসে পড়ে। তবে মুড়–লির বাসিন্দা মারুফ হোসেন দাবি করেছেন, দুর্ঘটনার পাশের গেটটি নামানো ছিল না। তবে অপরপাশের গেট নামানো ছিল।

ভাগ