সবকিছুতেই শান্ত ধোনি, রাগাতে পারেন কেবল একজন

লোকসমাজ ডেস্ক॥ ক্রিকেট মাঠে সবচেয়ে ঠাণ্ডা মাথার খেলোয়াড় হিসেবে পরিচিত ভারতের ইতিহাসের সফলতম অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি। খেলোয়াড়ি জীবনে খুব সময়ই মাঠে বা মাঠের বাইরে রাগতে দেখা গেছে ধোনিকে। যে কারণে তার নামই হয়ে গেছিল ‘ক্যাপ্টেন কুল।’ তবে ধোনিকেও রাগাতে পারেন একজন। কে পারেন ধোনিকে রাগাতে?- এমন প্রশ্নের জবাবটা শুধুমাত্র ধোনি নিজে কিংবা তার কাছের কেউই দিতে পারবেন। মাঠের ভেতরে প্রায় সব পরিস্থিতিই নিজের মতো সামাল দেন ধোনি। তবে মাঠের বাইরে তাকে রাগাতে পারেন শুধুমাত্র স্ত্রী সাক্ষী ধোনি। নিজের জন্মদিনে এ কথা জানিয়েছেন সাক্ষী। বৃহস্পতিবার ছিল ধোনির স্ত্রী সাক্ষীর ৩২তম জন্মদিন। যা উদযাপন করতে তার সঙ্গে এক লাইভ আড্ডার ব্যবস্থা করে ধোনির আইপিএল ফ্র্যাঞ্চাইজি চেন্নাই সুপার কিংস। যেখানে প্রশ্ন রাখা হয়, ‘ধোনিকে রাগাতে পারেন কে?’ উত্তরে নিজের নামই বলেছেন সাক্ষী। তিনি বলেন, ‘সে সবকিছুর বিষয়ে সবসময়ই শান্ত থাকে। আমিই একমাত্র যে তাকে রাগাতে পারি বা খোঁচাতে পারি। কারণ আমি তার সবচেয়ে কাছের মানুষ। কখনও কখনও সে নিজের রাগ-ক্ষোভ আমার ওপর উগড়ে দেয়। এতে আমার সমস্যা নেই।’ এসময় সাক্ষী জানান, ঘরে কখনও ক্রিকেট নিয়ে আলোচনা করেন না ধোনি। পুরোটা সময় নিজের মেয়ে জিভা ধোনির সঙ্গেই কাটান। মেয়ে জিভাও বাবার ভক্ত। শুধুমাত্র বাবার যেকোনো কথা একবাক্যে মেনে নেয় জিভা। সাক্ষী বলেন, ‘আমরা ঘরে ক্রিকেট নিয়ে কোনো আলোচনা করি না। এটা তার পেশা। তারা পেশাদার। তবে আপনি তার সন্তান সম্পর্কে কিছু বলতে পারবেন না, তার ভালোবাসা। জিভাও শুধুমাত্র তার কথাই শোনে। তাড়াতাড়ি খাবার শেষ করার জন্য আমি বা বাসার অন্য কেউ যদি দশবারও বলি, তাতেও কাজ হয় না। ধোনি একবার বললেই সে (জিভা) ঝটপট শেষ করে ফেলে।’

ভাগ