ভালো ঘুম হলে কি করোনা দূরে থাকবে?

লোকসমাজ ডেস্ক॥ সঠিক খাবার খাওয়া, নিয়মিত শরীরচর্চার পাশাপাশি পর্যাপ্ত ঘুমও আমাদের সুস্থতার জন্য সমান জরুরি। ঘুম যদি ভালো না হয় তবে আমাদের মস্তিষ্ক ঠিকভাবে কাজ করে না। তখন কোনো কাজই ভালোভাবে সম্পন্ন করা সম্ভব হয় না। বিশেষজ্ঞরা বলেন, প্রাপ্ত বয়স্ক একজন মানুষের জন্য দৈনিক ৭-৮ ঘণ্টা ঘুম জরুরি। ঘুম ভালো হলে আমাদের শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরি হয়। এদিকে ভাইরাসের সংক্রমণে প্রধান বাধা হলো রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা। শরীরে এই রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা যত ভালো হবে তত বেশি লড়াই করা যাবে রোগের সঙ্গে। তাই ঘুম ভালো হলে করোনাসহ সব ধরনের সংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়াই করা সম্ভব হবে।
ঘুম আমাদের শরীরের সর্বোচ্চ দৈহিক চাহিদা মেটায়। ঘুমের মধ্য়ে সাইোটক্সিক নির্গত হয়। যা শরীরে সংক্রমণ প্রতিরোধে সাহায্য করে। আর এর ফলেই আমাদের দেহে সাইটোকাইন উৎপন্ন হয়, যা আমাদের উদ্বেগ নিয়ন্ত্রণ করে। যার ফলে ঘুম ভালো হয়। তাই প্রতিদিন টানা ৭ থেকে ৮ ঘণ্টা ঘুম নিশ্চিত করুন। ফলে দেহে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরি হবে। এছাড়াও ঘুমের মধ্যো সাইটোকাইন তৈরি হয়। যা আমাদের স্ট্রেস, অ্যাংজাইটি এসব কম রাখে। একমাত্র ভালো ঘুম হলেই যে সংক্রমণ দূরে থাকবে, তা কিন্তু নয়। পাশাপাশি মেনে চলতে হবে সব রকম স্বাস্থ্যবিধি। যাদের সুগার, প্রেসার, হাইপার টেনশন ইত্যাদি সমস্যা আছে তারা খুব সহজেই সংক্রমিত হতে পারেন। এছাড়াও যারা প্রতিদিন বাইরে বের হচ্ছেন অথচ কোনো নিয়ম মানছেন না, তাদের ক্ষেত্রেও হতে পারে। কোনোভাবে আপনি যদি সংক্রমিত ব্যক্তির সংস্পর্শে আসেন তাহলে আপনিও এই ভাইরাসে আক্রান্ত হতে পারেন। তবে এসবের পরও সবসময় ভালো করে হাত ধুতে হবে, মাস্ক পরতে হবে। এই সব নিয়ম মেনে চলুন। যেহেতু ঘুম কম হলে অন্যান্য নানা সমস্যা যেমন মেজাজ বিগড়ে যাওয়া, ঠান্ডা লাগা অন্যান্য শারীরিক অসুস্থতা আসে তাই সব বয়সের সকলের ক্ষেত্রেই ঘুম ভালো হওয়া খুব দরকার। খেয়াল রাখবেন, ঘুম যেন অতিরিক্ত না হয়। খুব বেশি ঘুমও ভালো নয়। বেশি ঘুমলে স্থুলতা, ডায়াবেটিস, মাথাব্যথা ইত্যাদির মতো শারীরিক সমস্যা খুব সহজেই দেখা দেয়, শরীরের মেটাবলিজম ঠিক মতো হয় না। শরীর বিগড়ে যেতে পারে। হতে পারে থাইরয়েডের মতো সমস্যাও। এছাড়াও হার্টের নানা ব্যাধি, ডিপ্রেশন এসব হতেই পারে। এমনকী স্মৃতিশক্তিভ্রম হতে পারে।

ভাগ