মনিরামপুরের পল্লীতে দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ৯, আটক এক

স্টাফ রিপোর্টার, মনিরামপুর (যশোর) ॥ মনিরামপুরের পল্লীতে এক প্রবাসীর স্ত্রীর সাথে অনৈতিক সম্পর্কের ঘটনাকে কেন্দ্র করে মঙ্গলবার রাতে দু’পক্ষের সংঘর্ষে ৯ জন আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় একজনকে আটক করেছে পুলিশ। অভিযোগে জানা গেছে, মনিরামপুর উপজেলার খেদাপাড়া ইউনিয়নের ঘুঘুরাইল গ্রামের মৃত আফসার আলী গাজীর ছেলে আনিসুর রহমানের সাথে প্রতিবেশী এক প্রবাসীর স্ত্রীর পরকীয়া সম্পর্ক রয়েছে। গত বৃহস্পতিবার রাত নয়টার দিকে আনিসুর রহমান ওই গৃহবধূর ঘরে প্রবেশ করে। বিষয়টি জানাজানি হলে ওই গৃহবধূর শ্বশুর বাইরে থেকে দরজায় তালা লাগিয়ে চিৎকার করলে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসেন। পরে পুলিশ গিয়ে সেখান থেকে আনিসুরসহ ওই গৃহবধূকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। তাদের বিরুদ্ধে অনৈতিক কর্মকান্ডের অভিযোগ এনে পুলিশ শুক্রবার সকালে আদালতে সোপর্দ করে। পরে তারা আদালত থেকে মুক্তি পান। এদিকে গত মঙ্গলবার রাত সাড়ে নয়টার দিকে ঘুঘুরাইল গ্রামের আমজাদ হোসেন (প্রতিবেশী) দোকান থেকে বাড়িতে ফিরছিলেন। পথিমধ্যে আনিসুর রহমান ও তার লোকজন আমজাদ হোসেনের ওপর হামলা চালিয়ে তাকে মারপিট করেন। এ সময় হাফিজুর রহমান নামে এক যুবক ঠেকাতে আসলে তাকেও মারপিট করা হয়। আমজাদ হোসেনের অভিযোগ, পরকীয়া সম্পর্কের প্রতিবাদ করায় আনিসুর পরিকল্পিতভাবে তার ওপর হামলা চালিয়েছে। পরে এ ঘটনা জানাজানি হলে রাতেই আনিসুর রহমান ও আমজাদ হোসেনের লোকজনের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এতে উভয়পক্ষের অন্তত ৯ জন আহত হন। তাদেরকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। আহতরা হলেন-আনিসুর রহমান ও তার ভাই সামছুর রহমান, মুজিবর রহমান, ভাইপো সুমন, নজরুল, হায়দার আলী, আমজাদ হোসেন, হাফিজুর রহমান ও রকি হোসেন। এদের মধ্যে অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য নজরুল ও সুমনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। এ ঘটনায় আনিসুর রহমান প্রতিপক্ষের ১০ জনের নাম উল্লেখসহ থানায় মামলা দায়ের করেছেন। পুলিশ এ মামলার আসামি রবিউলকে আটকের পর আদালতে সোপর্দ করেছে।

ভাগ