শিক্ষার্থীরা পাচ্ছেন প্রাতিষ্ঠানিক ইমেইল অ্যাড্রেস : অনলাইনে যবিপ্রবি’র পরবর্তী সেমিস্টার কাস ১৭ অক্টোবর

যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয়ে (যবিপ্রবি) অনলাইনে আগামী ১৭ অক্টোবর পরবর্তী সেমিস্টারের কাস শুরু হচ্ছে। বিশ^বিদ্যালয়ের নিজস্ব ডাটাবেজ ও ব্যবস্থাপনায় কাস নেওয়ার প্রস্তুতি হিসেবে সকল শিক্ষককে কারিগরি প্রশিক্ষণও দেওয়া হয়েছে। এছাড়া বিশ^বিদ্যালয়ের সকল নিয়মিত শিক্ষার্থীদের দেওয়া হবে প্রাতিষ্ঠানিক ‘জি-সুইট’ ইমেইল অ্যাড্রেস। বুধবার দুপুরে যবিপ্রবির প্রশাসনিক ভবনের সম্মেলন কক্ষে বিশ^বিদ্যালয়ের সর্বোচ্চ নীতি-নির্ধারণী ফোরাম রিজেন্ট বোর্ডের ৬২তম বিশেষ সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। বৈশি^ক মহামারির কারণে সদস্যদের অনেকে জুম অ্যাপসের মাধ্যমে ভার্চুয়ালি এবং অনেকে স্বশরীরে রিজেন্ট বোর্ডের সভায় অংশ নেন।
রিজেন্ট বোর্ডের বিশেষ সভায় জানানো হয়, করোনা মহামারিতে শিক্ষার্থীদের ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও বাংলাদেশ বিশ^বিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের (ইউজিসি) নির্দেশনা অনুযায়ী যবিপ্রবি পরবর্তী সেমিস্টারের কাসসমূহ অনলাইনে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ১৭ অক্টোবর থেকে অনলাইনে কাস শুরুর পূর্বে আগামী ৫ অক্টোবরের মধ্যে বিশ^বিদ্যালয়ের সকল বিভাগকে শিক্ষার্থীদের ‘কোর্স বণ্টন’ সমাপ্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া শিক্ষার্থীদের কোর্স রেজিস্ট্রেশন, সেমিস্টার ফিস ও অন্যান্য ফি সমূহ জমা দেওয়ার তারিখ ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত করা হয়েছে। শিক্ষার্থীরা স্বশরীরে বিশ^বিদ্যালয়ে এসে কিংবা মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে ফিসমূহ জমা দিতে পারবেন। রিজেন্ট বোর্ডের সভায়, আগামী ১০ নভেম্বরের মধ্যে যবিপ্রবির সকল নিয়মিত শিার্থীদের প্রাতিষ্ঠানিক ‘জি-সুইট’ ইমেইল অ্যাড্রেস দেওয়া হবে বলে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। এ জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের আইসিটি সেল সকল কারিগরি প্রস্তুতি সম্পন্ন করছে। শিার্থীরা এই ইমেইল অ্যাড্রেসের মাধ্যমে ই-মেইল ছাড়াও গুগল ড্রাইভ (আনলিমিটেড স্টোরেজ সুবিধা), গুগল কাসরুম, গুগল মিটসহ অন্যান্য ২৮টি সার্ভিস ব্যবহার করতে পারবেন। এ ‘জি-সুইট’ ইমেইল অ্যাড্রেসের মেয়াদ হবে কোনো শিক্ষার্থীর শিক্ষা কার্যক্রম শেষ হওয়ার পর পরবর্তী এক বছর পর্যন্ত। এর আগে অনলাইন কাসের নেওয়ার বিষয়ে যবিপ্রবির ৩২তম একাডেমিক কাউন্সিলের বিশেষ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে গৃহীত সিদ্ধান্তসমূহ ও আলোচ্য বিষয়গুলো ৬২তম রিজেন্ট বোর্ডের বিশেষ সভায় পাশ করা হলো।
যবিপ্রবির উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত রিজেন্ট বোর্ডের সভায় যবিপ্রবি’র কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক মো. আব্দুল মজিদ, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (বিশ^বিদ্যালয়) এ কে এম আফতাব হোসেন প্রামানিক, বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (অতিরিক্ত সচিব) জাবেদ আহমেদ, সাভারের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব বায়োটেকনোলজির মহাপরিচালক ড. মো. সলিমুল্লাহ, যশোরের আঞ্চলিক কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের মুখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মো. মতিয়ার রহমান, জাহাঙ্গীরনগর বিশ^বিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের অধ্যাপক ড. শরীফ এনামুল কবির, ইব্রাহিম কার্ডিয়াক হসপিটাল অ্যান্ড রিসার্চ ইনস্টিউটের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ও সিনিয়র কনসালটেন্ট ডা. এম. এ. রশীদ, যশোর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মোল্লা আমির হোসেন, যবিপ্রবির ফিশারিজ অ্যান্ড মেরিন বায়োসায়েন্স বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. আনিছুর রহমান, কেমিকৌশল বিভাগের অধ্যাপক ড. বিপ্লব কুমার বিশ^াস, অণুজীববিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. ইকবাল কবীর জাহিদ, বাংলাদেশ বেসরকারি বিশ^বিদ্যালয় সমিতির সভাপতি শেখ কবির হোসেন, সরকারি এম এম কলেজের অধ্যক্ষ (ভারপ্রাপ্ত), সরকারি সিটি কলেজের অধ্যক্ষ, রেজিস্ট্রার প্রকৌশলী মো. আহসান হাবীব প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

ভাগ