নিজেই যেভাবে নিজের বন্ধু হবেন

লোকসমাজ ডেস্ক॥ আপনি হয়তো আরেকজনের কাছে খুব ভালো বন্ধু হিসেবে বিবেচিত, তবে নিজের সাথে নিজের বন্ধুত্ব আছে তো? আশেপাশের সবাইকে ভালো রাখার জন্য কিন্তু আপনার নিজেকে ভালো রাখতেই হবে। আপনার নিজের ভালো থাকার জন্যও কিন্তু এটি ভীষণ জরুরি। নিজেই যদি নিজের সবচেয়ে ভালো বন্ধু হতে পারেন, তবেই পরিপূর্ণভাবে উপভোগ করতে পারবেন জীবনের আনন্দ।
নিজেকে উৎসাহ দিন
বন্ধুর খারাপ সময়ে তাকে যেভাবে বিভিন্নভাবে সাহস জোগান আপনি, ঠিক এভাবেই নিজেকে উৎসাহ দিন। নিজের কাজ নিজে মূল্যায়ন করুন, ভুল থেকে শিক্ষা নিন।
ডায়েরি লিখুন
নিজের অভিজ্ঞতা, অনুভূতি লেখার অভ্যাস করুন। কোনও ধরনের জাজমেন্ট ছাড়াই লিখুন নিজের সম্পর্কে।
মেডিটেশন করুন
নিজের জন্য খানিকটা সময় বের করে মেডিটেশন করুন। এটি আপনাকে শান্ত রাখবে।
নিজের যত্ন নিন
সবসময় অন্যের সুবিধা-অসুবিধার কথা না ভেবে নিজের প্রতি যত্নশীল হোন। নিয়মিত শরীরচর্চা করুন। প্রতিদিন আট ঘণ্টার ঘুম ও সঠিক খাদ্যাভ্যাস নিশ্চিত করুন।
নেতিবাচক সঙ্গ ত্যাগ করুন
যাদের সঙ্গে মিশলে কোনও ধরনের ইতিবাচক প্রভাব পড়ে না আপনার নিজের ওপর, তাদের সঙ্গ ত্যাগ করুন।
শখের কাজ করুন
ঘণ্টার পর ঘণ্টা টিভির সামনে বসে থাকা নয়, বাগান করা বা ছবি আঁকার মতো শখ থাকলে সেগুলোতে সময় দিন।
নিজের প্রতি নমনীয় হোন
হয়তো আজকের কাজগুলো ঠিক মতো গুছিয়ে উঠতে পারেননি। নিজেকে সান্ত্বনা দিন। হয়তো কোনও কাজে ভুল হয়ে গেছে, নিজেকে ক্ষমা করে দিন। জমিয়ে রাখবেন না মনে। ভুল থেকে শিখে পরবর্তীতে আর একই ভুল হবে না- নিজেকে বোঝান এভাবে।
নিজের ভালো দিকগুলো সম্পর্কে জানুন
নিজেকে নিয়ে গর্ববোধ করা যায় এমন বেশ কিছু গুণাবলি নিশ্চয় রয়েছে আপনার। সেগুলো খুঁজে বের করুন। সেগুলোর চর্চা করুন।
নিজেকে নিখুঁত ভাববেন না
মনে রাখবেন, কোনও মানুষই নিখুঁত নয়। তাই সব কাজ নিখুঁতভাবে করার চেষ্টা করলেও সবসময় সেটা করতে পারবেন, এমনটা ভাববেন না।
নিজেকে পুরস্কৃত করুন
ভালো কাজের জন্য নিজেকে নিজেই পুরস্কৃত করুন। নিজেকে উৎসাহ দিন, ভালোবাসুন। মনে রাখবেন; নিজেকে ভালোবাসা মানে স্বার্থপরতা নয়, সবাইকে নিয়ে ভালো থাকার জন্যই বরং এটি ভীষণ প্রয়োজনীয়।

ভাগ