নড়াইলের সাবেক তহশিলদার নারায়ন চন্দ্রের ৮৪ বছরের দণ্ড

 

স্টাফ রিপোর্টার ॥ নড়াইলের সাবেক তহশিলদার নারায়ন চন্দ্র বিশ্বাসকে ৫টি মামলায় ৮৪ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন যশোরের আদালত। কিন্তু সকল সাজা এক সাথে কার্যকর হওয়ায় তাকে ৭ বছর কারাগারে থাকতে হবে বলে জানিয়েছেন আইনজীবী। যশোর দুর্নীতি দমন কমিশনের আইনজীবী আশরাফুল আলম বিপ্লব জানান, জালিয়াতির মাধ্যমে সরকারের টাকা আত্মসাত করার অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় বৃহস্পতিবার স্পেশাল আদালতের বিচারক (জেলা ও দায়রা জজ) মোহাম্মদ শামসুল হক এই রায় ঘোষণা করেন। একই সাথে তাকে ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড, অনাদায়ে ৫ মাসের কারাদন্ড দেয়া হয়েছে। রায় ঘোষণাকালে নারায়ন চন্দ্র বিশ্বাস আদালতে উপস্থিত ছিলেন। আইনজীবী আশরাফুল আলম বিপ্লব আরও জানান, নারায়ন চন্দ্র বিশ্বাস নড়াইল জেলার আওড়িয়া ও চন্ডিবরপুর ইউনিয়ন পরিষদে তহশিলদার থাকাকালে জাল কাগজপত্র বানিয়ে (১৯৯৬ থেকে ২০০১) গত ৫ অর্থবছরে সরকারের ৪ লাখ ৬৬ হাজার ৯শ টাকা আত্মসাত করেন। এই ঘটনায় নড়াইল সদর ভূমি অফিসের কানুনগো হাবিবুল্লাহ বাহার ২০০২ সালের ১০ নভেম্বর দুর্নীতি দমন কমিশনে মামলা করেন। বিষয়টি তদন্ত শেষে আদালতে চার্জশিট দাখিল করে দুদক। দীর্ঘ শুনানি শেষে বৃহস্পতিবার আদালত ৫টি মামলায় ৮৪ বছর কারাদন্ড দেন নারায়ন চন্দ্র বিশ্বাসকে। তবে তাকে কারাভোগ করতে হবে সর্বোচ্চ ৭ বছর। একই সাথে তাকে ৫ হাজার করে মোট ১০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে ৫ মাসের কারাদণ্ড ও দিয়েছেন। রায় ঘোষণাকালে তিনি এজসলাসে উপস্থিত ছিলেন। পরে বিচারক তাকে কারাগারে প্রেরণ করেন।