মণিরামপুরে বিএনপির আরো ৪ নেতাকর্মী আটক

 

স্টাফ রিপোর্টার,মণিরামপুর(যশোর)॥ মণিরামপুরে পুলিশ শুক্রবার দিনব্যাপী সাঁড়াশি অভিযান চালিয়ে বিভিন্ন স্থান থেকে বিএনপির অরো চার নেতাকর্মীকে আটক করে। এ নিয়ে আটক করা হলো মোট ১৬ নেতাকর্মীকে। এছাড়া বিভিন্ন নেতাকর্মীদের বাড়ি বাড়ি পুলিশি অভিযান চলার খবর পাওয়া গেছে।আটক নেতাকর্মীদের মধ্যে নেহালপুর ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক জিএম খলিলুর রহমানকে একটি নাশকতার পুরাতন মামলায় আসামি করে তাকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়। বাকিদের থানায় রাখা হয়েছে। এর আগে চলতি সপ্তাহে পুলিশ ১২ নেতাকর্মীকে আটকের পর জেল হাজতে প্রেরণ করে।
থানা বিএনপির আহ্বায়ক সাবেক পৌর মেয়র অ্যাডভোকেট শহীদ ইকবাল হোসেন জানান, পুলিশ  শুক্রবার দিনব্যাপী বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে বিএনপির চার নেতাকর্মীকে আটক করে। আটক নেতাকর্মীরা হলেন, নেহালপুর ইউনিয়ন বিএনপির সাধারন সম্পাদক জিএম খলিলুর রহমান, হরিদাসকাটি ইউনিয়ন বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক নবিরুজ্জামান আজাদ, চালুয়াহাটির সাবেক ইউপি সদস্য আব্দুর রশিদ ও ঝাপা গ্রামের ছাত্রদল নেতা মারুফ হোসেন। এর মধ্যে মারুফ হোসেনকে রাতে পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ছেড়ে দেয়। এছাড়া পুলিশ অভিযান চালিয়েছে ঝাপা ইউনিয়ন বিএনপির আহ্বায়ক সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আলাউদ্দিন আলা, গোলাম মোস্তফা, নেহালপুর ইউনিয়ন বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আলী হামজাসহ বিভিন্ন নেতাকর্মীর বাড়িতে। থানা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক আসাদুজ্জামান মিন্টু অভিযোগ করেন, আটকৃত নেতাকর্মীরা সব মামলায় জামিনে থাকলেও পুলিশ আটকের পর নাশকতার পুরাতন মামলায় আসামি করে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরন করছে। তবে অহেতুক নেতাকর্মীদের আটকের নিন্দা জানিয়ে অবিলম্বে তাদের নি:শর্ত মুক্তির দাবি জানিয়ে থানা বিএনপির আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট শহীদ ইকবাল হোসেন জানান, বিনা কারনে নেতাকর্মীদের আটক ও মিথ্যা মামলা দিয়ে ঢাকার মহাসমাবেশ বাঞ্চাল করা যাবেনা। তবে থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) শেখ মনিরুজ্জামান জানান, সুনিদ্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতেই আটক করা হচ্ছে। কাউকে অহেতুক হয়রানি করা হচ্ছেনা।