খুলনায় তক্ষকসহ গ্রেফতার তিনজনকে ৬ মাসের কারাদণ্ড

খুলনা ব্যুরো॥ খুলনায় তক্ষকসহ গ্রেফতার তিনজনকে ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড ও একজনকে ২ হাজার টাকা জরিমানা করেছে র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত। সোমবার রাতে তাদের নগরীর রূপসা স্ট্যান্ডরোড মোল্লাবাড়ি এলাকা থেকে আটক করা হয়।
দ-প্রাপ্তরা হলেন, তক্ষক পাচারচক্রের মূলহোতা নগরীর খালিশপুর এলাকার সুলতানের ছেলে মো. আব্দুর রাজ্জাক (৪৫),নগরীর রূপসা স্ট্যান্ড রোড মোল্লা বাড়ি এলাকার রুস্তম আলীর ছেলে আরিফুল ইসলাম (৪৩) ও পিরোজপুর সদর উপজেলার আশরাফ শেখের ছেলে ফারুক হোসেন বাপ্পী (৩০)। এছাড়া পিরোজপুর সদর উপজেলার মিজান নামে একজনকে ২ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।
র‌্যাব- ৬-র উপঅধিনায়ক মেজর আব্দুর রকিব মঙ্গলবার সকালে জানান, দীর্ঘদিন ধরে একটি চক্র খুলনা মহানগরীর রূপসা স্ট্যান্ডরোড এলাকায় বিলুপ্ত প্রজাতির তক্ষক কেনাবেচা করছে এমন সংবাদ তাদের কাছে আসে। সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব সদস্যরা গোয়েন্দা তৎপরতা জোরদার করে। তক্ষক বিক্রি হবে এমন সংবাদ পেয়ে সোমবার রাত ১০টার দিকে তারা রূপসা স্ট্যান্ডরোড মোল্লাবাড়ি এলাকা ঘিরে অভিযান চালায়। সেখান থেকে তারা বিলুপ্ত প্রজাতির তক্ষকটি উদ্ধার করে।
তিনি বলেন, গ্রেফতার হওয়া আরিফুল ইসলাম তক্ষক বিক্রির মধ্যস্থতাকারী। গহীন জঙ্গল থেকে তারা তক্ষক সংগ্রহ করে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের মানুষের কাছে তা বিক্রি করতেন। সোমবার রাতে তক্ষকটি কিনতে তিনজন মোল্লাবাড়ি এলাকায় আসেন। সেখানে দরদাম করার সময়ে তাদের আটক করা হয়। এছাড়া ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে আরিফুল ইসলাম, ফারুক হোসেন বাপ্পী ও মো. আব্দুর রাজ্জাককে ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড এবং মিজানকে ২ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। কারাদন্ডপ্রাপ্ত আসামিদের খুলনা কারাগারে প্রেরণ এবং উদ্ধারকৃত তক্ষক বিভাগীয় বন কর্মকর্তার নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে।