ঢাকায় পুলিশের চোখে স্প্রে করে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত দুই আসামি ছিনতাই

লোকসমাজ ডেস্ক॥ ঢাকার একটি আদালত থেকে পুলিশের চোখে স্প্রে করে প্রকাশক দীপন হত্যা মামলার মৃত্যুদণ্ড প্রাপ্ত দুই আসামিকে ছিনিয়ে নিয়ে গেছে সহযোগীরা।  রবিবার বেলা ১২টার দিকে ঢাকার চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত প্রাঙ্গণে এ ঘটনা ঘটে। তাদেরকে ধরতে ২০ লাখ টাকা পুরস্কার ঘোষণা করেছে পুলিশ সদর দফতর। এঘটনার পর দেশের সকল আদালতে নিরাপত্তা বাড়ানো হয়।  রাজধানীতে রেড এলার্ট জারি করা হয়। পলাতক দুই আসামি হলেন মইনুল হাসান শামীম ও আবু সিদ্দিক সোহেল। শামীমের বাড়ি সুনামগঞ্জের ছাতকের মাধবপুর গ্রামে। সোহেলের বাড়ি লালমনিরহাটের আদিতমারীর ভেটোশ্বর গ্রামে। তারা জেএমবি সদস্য।  ঢাকার সন্ত্রাস দমন ট্রাইব্যুনালে মোহাম্মদপুর থানার একটি মামলায় তাদের হাজিরা করা হয়েছিল। হাজিরা শেষে হাজতখানায় নেওয়ার পথে এ ঘটনা ঘটে। ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের প্রধান হারুন আর রশীদ বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, দুটি মোটরসাইকেলে চারজন লোক এসে পুলিশের চোখে স্প্রে করে আসামিদের ছিনিয়ে নিয়ে যায়। তারা প্রকাশক দীপন হত্যা মামলার মৃত্যুদণ্ড প্রাপ্ত আসামি। তাদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। এছাড়া আশপাশের একাধিক সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখা হচ্ছে। ডিএমপির সিসিটিভি মনিটরিংয়ে লাইভ ফুটেজ দেখা হচ্ছে। তারা যেন ঢাকার বাইরে না চলে যায় সে বিষয়েও নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। ঘটনার পর রাজধানীতে রেড অ্যালার্ট জারি করে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)। রাজধানীর প্রতিটি থানা ও অন্যান্য ইউনিটকে চেকপোস্ট বসানোর নির্দেশনা দেওয়া হয়। রোববার বিকেল সাড়ে ৩ টায় ডিএমপি কমিশনার খন্দকার গোলাম ফারুক গণমাধ্যমে এ তথ্য নিশ্চিত করেন। দুই আসামিকে ছিনিয়ে নেওয়ার ঘটনায় সারা দেশের আদালতে নিরাপত্তা বাড়ানোর নির্দেশ দিয়েছেন সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসন। সুপ্রিম কোর্টের মুখপাত্র মোহাম্মদ সাইফুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। জজ আদালত থেকে জঙ্গি ছিনতাইয়ের ঘটনা প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর নজরে এলে তিনি এই নির্দেশনা দেন। আদালত থেকে পালিয়ে যাওয়া দুই আসামিকে ধরিয়ে দিলে ২০ লাখ টাকা পুরস্কার ঘোষণা করেছে পুলিশ সদর দপ্তর। পুলিশ সদর দপ্তরের এআইজি (মিডিয়া অ্যান্ড পিআর) মো. মনজুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।