বিদ্যুৎস্পৃষ্টে ভাই বোনের মৃত্যুতে শোকাবহ বাঘারপাড়া

স্টাফ রিপোর্টার, বাঘারপাড়া॥ বিদ্যুৎ স্পৃষ্টে বাঘারপাড়ায় দুই ভাই-বোনের মৃত্যুতে গভীর শোকাবহের সৃষ্টি হয়ে ভদ্রডাঙ্গাসহ আশেপাশের গ্রামে। শুক্রবার বেলা সাড়ে এগারোটার দিকে এ ঘটনা ঘটে বাঘারপাড়ার রায়পুর ইউনিয়নের ভদ্রডাঙ্গা গ্রামে। নিহত আকাশ হোসেন (১২) ও জান্নাতুল নাইম সামিয়া (৫) ওই গ্রামের কবির হোসেনের সন্তান। কবির যশোর সেনাবাহিনীর ল্যান্স কর্পোরাল। তিনি যশোর সেনানিবাসে কর্মরত। নিহত আকাশ যশোর জিলা স্কুলের ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্র। আকাশের পড়া লেখার কারণে কবির পরিবার নিয়ে যশোর শহরের রেল গেট এলাকায় থাকেন।


স্থানীয় ও থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, বাঘারপাড়া-খাজুরা সড়কের ভদ্রডাঙ্গা মোড়ে (সব্বারের মোড়) কবির হোসেনের এক তলা একটি মার্কেট রয়েছে। গত বৃহস্পতিবার ছুটি পেয়ে কবির ভদ্রডাঙ্গায় পরিবার নিয়ে বেড়াতে আসেন। গ্রামে আসলে কবির পরিবার নিয়ে তার ভাইয়ের বাসায় থাকেন। ভাইয়ের বাসা ও কবিরের মার্কেট পাশাপাশি।
সকাল থেকে কবির তার ভাইয়ের বাসায় কাজ নিয়ে ব্যস্ত ছিলেন। তিনি জানান, বেলা এগারোটার দিকে আকাশ ও সামিয়া তাদের মার্কেটের ছাদে খেলতে যায়। মার্কেটের একটি মুদি দোকানের বড় একটি সাইন বোর্ড দেওয়া ছিলো ছাদে। সাইন বোর্ডে যে বিদ্যুতায়িত তা তাদের জানা ছিলো না। ছেলে, মেয়ে দুজনেই ওই সাইন বোর্ডে হাত দিলে তারা বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়। এ সময় পরিবার ও অন্যদের সহযোগিতায় আহত দুই সন্তানকে চিকিৎসার জন্য যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসাপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। এ সময় হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক আকাশকে মৃত ঘোষনা করেন। মেয়ে সামিয়াকে ভর্তির কিছুক্ষণ পর মৃত ঘোষণা করে।
যশোর জেনারেল হাসাপাতাল থেকে নিহত দুই শিশুর লাশ এলাকায় নিয়ে আসার আগেই সেখানে হাজার হাজার মানুষ উপস্থিত হয়। লাশ পৌছালে স্বজনরা কান্নায় ভেঙে পড়েন। নিহতের বাবা, মা ও স্বজনের আহাজারিতে এ সময় সেখানকার বাতাস ভারি হয়ে ওঠে। আশেপাশে গ্রামগুলো থেকে আসা কয়েক হাজার নারী পুরুষের ভিড়ে সেখানে এক হৃদয়বিদারক দৃশ্যের সৃষ্টি হয়।
উল্লেখ্য গত ৩ আগস্ট একই ইউনিয়নের জয়নগর গ্রামে খড় কাটার মেশিনে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে দুই ভাইয়ের মৃত্যু হয়।