চৌগাছায় ভাইপোর কামড়ে আঙ্গুল হারালেন বণিক সমিতির নেতা

 

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ভাইপোর কামড়ে যশোরের চৌগাছা বণিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক হাজী মো. ইবাদত হোসেনের একটি আঙ্গুল হাত থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। এ সময় তার ছেলে ও এক ভাইপো আহত হয়েছেন। লাখ লাখ টাকার সম্পদের ভাগাভাগি নিয়ে গত বৃহস্পতিবার রাতে এ ঘটনা ঘটে। আহতদের গুরুতর অবস্থায় যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছেন।
আহতরা হচ্ছেন, হাজী ইবাদত হোসেন (৫৫), তার পুত্র ইকবাল কবির (২৬)। হাজী লিয়াকত হোসেনের ছেলে আদিম মাহমুদ (৪৬) চৌগাছা বণিক সমিতির দীর্ঘ ২৬ বছরের সাধারণ সম্পাদক হাজী ইবাদ হোসেন। তিনি জানিয়েছেন, গত বৃহস্পতিবার রাত ১১টার দিকে ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান ইউনিলিভার অফিসে তিনি বসেছিলেন। এ সময় তার ভাই হাজী লিয়াকত হোসেন, দু’ছেলে শফিকুল ইসলাম ও আদিম মাহমুদ এতে তার উপর হামলা চালায়। হাজী লিয়াকত হোসেন দরজার তালা, পায়ের জুতা খুলে তাকে বেদম প্রহার করে। ভাইপো শফিকুল ইসলাম তার বাম হাতের একটি অঙ্গুলে কামড় দিলে ওই আঙ্গুলের অংশ বিশেষ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। এ সময় ছেলে ইকবাল কবির পিতাকে উদ্ধার করতে আসলে তাকেও বেদম প্রহার করা হয়। পরে দু’পক্ষের সহিংসতায় আহত হন হাজী লিয়াকত হোসেনের ছোট ছেলে আদিম মাহমুদ। আহত ৩ জনকে রক্তাক্ত অবস্থায় যশোর ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাদের অবস্থা গুরুতর।
হাজী ইবাদত হোসেন জানিয়েছেন, তাদের মুদী দোকান, বিস্ফোরক দ্রব্যের লাইসেন্স ও জমিজমাসহ লাখ টাকার সম্পদ নিয়ে ভাই হাজী লিয়াকত হোসেনের সাথে বিরোধ রয়েছে। এ রিপোর্টের জের ধরে এ দিন রাতে লিয়াকত হোসেন ও তার ছেলে হাজী ইবাদত হোসেনের উপর হামলা চালায়। এতে তারা আহত হন। অপরদিকে হাজী লিয়াকত হোসেনের লোকজন জানিয়েছেন, ব্যবসা ভাগাভাগি নিয়ে হাজী ইবাদত হোসেন তাদের সমান অধিকার না দেয়ায় এ ঘনটা ঘটে। এ ব্যাপারে হাজী ইবাদত হোসেন তার ভাই ও ভাইপোদের বিরুদ্ধে চৌগাছা থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। চৌগাছা থানার পুলিশ পরিদর্শক (ওসি) মো. সাইফুল ইসলাম সবুজের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, গোলযোগ দু’ভাইয়ের মধ্যে। এখন লিখিত অভিযোগ পেলে সঠিক তদন্তপূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।

Lab Scan
ভাগ