যশোরে বান্ধবীসহ তরুণকে আটকে রেখে মুক্তিপণ দাবি,দুজন পাকড়াও

 

স্টাফ রিপোর্টার ॥ যশোরে বান্ধবীসহ তরুণকে অপহরণের পর আটকে রেখে মুক্তিপণ আদায়ের চেষ্টাকালে দুই দুর্বৃত্তকে হাতেনাতে আটক করা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় যশোর ক্যান্টনমেন্ট কলেজের পাশে এ ঘটনা ঘটে।
আটককৃতরা হলো-যশোর শহরতলীর ধর্মতলা কদমতলা হ্যাচারিপাড়ার ইসমাইল হোসেনের ছেলে ইয়াছিন (১৯) ও সুজলপুরের জাহিদুল ইসলাম বকুলের ছেলে সোয়েব আক্তার (১৯)।
পুলিশ সূত্রে জানা যায়, চুয়াডাঙ্গার জীবননগর উপজেলার নতুন চাকলা গ্রামের শফিকুল ইসলামের ছেলে বর্তমানে যশোর শহরের পালবাড়ি পাওয়ার হাউস মোড় এলাকার জনৈক বজলুর রহমানের বাড়ির ভাড়াটিয়া শিহাব উদ্দিন (১৯) গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার দিকে প্রাইভেট পড়ে ফিরছিলেন। সাথে ছিলো বান্ধবী উর্মি খাতুন (১৭)। পথে যশোর ক্যান্টনমেন্ট কলেজের পশ্চিম পাশে পৌঁছালে কয়েকজন দুর্বৃত্ত তাদের অপহরণ করে স্থানীয় একটি জঙ্গলের ভেতর নিয়ে যায়। তারা সেখানে তাদের আটকে রেখে শিহাব উদ্দিনের বন্ধু ও নিকট আত্মীয়ের কাছে ফোন করে মুক্তিপণ হিসেবে ৫০ হাজার টাকা দিতে বলে। এক পর্যায়ে তারা শিহাবের কাছে থাকা আড়াই হাজার টাকা কেড়ে নেয়। এরই মধ্যে তার বন্ধু (শিহাব) আরাফাত উল্লাহ শফি এবং আশেপাশের লোকজন বিষয়টি জানতে পেরে ঘটনাস্থলে গেলে দুর্র্বৃত্তরা তাদের ছেড়ে দিয়ে পালানোর চেষ্টা করে। কিন্তু স্থানীয় লোকজন ইয়াছিন ও সোয়েব নামে দুই দুবর্ৃৃত্তকে সেখান থেকে হাতেনাতে আটক করেন। তবে তাদের অন্য সঙ্গীরা পালিয়ে যায়। পরে খবর পেয়ে পুলিশ সেখানে গেলে আটক দুজনকে তাদের হাতে তুলে দেন স্থানীয়রা। সূত্র আরও জানায়, এ ঘটনায় আটক দুজনসহ ৪ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা আরো ৩/৪ জনকে আসামি করে কোতয়ালি থানায় মামলা করেছেন শিহাব উদ্দিন। অপর আসামিরা হলো-ধর্মতলা কদমতলা এলাকার আশিক ও সজল।

Lab Scan
ভাগ