৪০০ জন ৬০ উর্ধ্ব মাকে নিয়ে জয়তী সোসাইটির ফল উৎসব

 

স্টাফ রিপোর্টার ।। বৃহস্পতিবার সকালে জাঁকজমকপূর্ণ পরিবেশে অনুষ্ঠিত হলো জয়তী সোসাইটির ৪০০ জন ৬০ ঊর্ধ্ব মায়ের ফল খাওয়া উৎসব। এইসব মায়ের অনেকেরই কোন সন্তান নেই। আবার যাদের সন্তান আছে তারা পরিবারের কাছে অবজ্ঞার শিকার। এই বয়সে এসে মায়েরা একা হয়ে পড়েছেন, পরিবার থেকে অনেকেই বিচ্ছিন্ন। তাদের কথা শোনার লোকের বড় অভাব। মায়েদের নানাবিধ সমস্যার কথা বিবেচনা করে জয়তী সোসাইটি ২০০৮ সালের ৮ মার্চ প্রতিষ্ঠা করে জয়তী ৬০ ঊর্ধ্ব নারীসেবা কর্মসূচি নামে একটি কার্যক্রম। মায়েদেরকে একটু প্রশান্তি দেয়ার লক্ষ্যে জয়তী সোসাইটি মায়েদের নিয়ে বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করে থাকে। ৬০ ঊধর্ব মায়েদের ফল উৎসব এর মধ্যে অন্যতম। প্রতি বছর এই মায়েদের নিয়ে মধু মাসে ফল খাওয়া উৎসব আয়োজন করা হয়। যেখানে মায়েরা অত্যন্ত তৃপ্তি সহকারে বিভিন্ন রসালো ফল খেয়ে থাকেন। এবার মায়েদেরকে খাওয়ানো হয়েছে আম, কাঁঠাল, কলা, চিড়া, দই, মুড়ি ও মিষ্টি।

অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাঁচতে শেখার নির্বাহী পরিচালক ড. অ্যাঞ্জেলা গোমেজ, তালবাড়িয়া ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ ড. শাহানাজ পারভীন, যশোর বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শ্রাবনী সুর, বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ যশোর জেলা শাখার অর্থ সম্পাদক মাহমুদা রিনি, দৈনিক স্পন্দনের নির্বাহী সম্পাদক মাহাবুব আলম লাবলু, উইমেন্স বিউটি পার্লার অ্যাসোসিয়েশন যশোর জেলা শাখার সভাপতি সুফিয়া মাহমুদ রেখা, গ্লোবাল টেলিভিশনের জেলা প্রতিনিধি তামান্না ফারজানা খান চৌধুরী, দৈনিক সমাজের কথার যুগ্মবার্তা সম্পাদক প্রনব দাস, দৈনিক গ্রামের কাগজের স্টাফ রিপোর্টার তাহমিনা বিশ^াস, দৈনিক প্রতিদিনের কথার বিজ্ঞাপন প্রতিনিধি রেহেনা ইসলামসহ বিভিন্ন আঞ্চলিক পত্রিকার প্রতিনিধিবৃন্দ, যশোর পৌরসভার মহিলা কাউন্সিলর নাসিমা আক্তার জলি, চাঁচড়া যশোরের সমাজসেবক জাহিদ গোলদার, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব হারুন অর রশীদ প্রমুখ। আরো উপস্থিত ছিলেন জয়তী ৬০ ঊর্ধ্ব নারীসেবা কর্মসূচি বাস্তবায়ন কমিটির সভাপতি নূরুল ইসলাম, সহসভাপতি সালেহা বেগম, হাজী আনিছুর রহমান মুকুল, সদস্য কাজী লুৎফুন্নেছা, রাফ্ফাত আরা ডলি ও দাতা সদস্য সালেহা খাতুন। অনুষ্ঠানে শুরুতে জয়তী সোসাইটির পরিচালক ও কর্মসূচির সম্পাদক অর্চনা বিশ^াস মায়েদের নিয়ে স্বাগত বক্তব্য রাখেন।বিজ্ঞপ্তি।

 

Lab Scan
ভাগ