অনন্য মুশফিক

লোকসমাজ ডেস্ক॥ একজন মুশফিকুর রহিমকে নিয়ে অনেক কিছুই লিখতে ইচ্ছে হয়। তুলে ধরতে ইচ্ছে হয় তার প্রতিটি মুহূর্ত, প্রতিটি ক্ষণ! কিন্তু সময়ের অভাবে যেতে হয় এড়িয়ে, ফলে শত গল্প পড়ে যায় আড়ালে। হারিয়ে যায় অদৃশ্যে। তার লড়াই, তার চেষ্টা, তার নিবেদন, তার ভালোবাসা, তার জিদ কিংবা হাজারো কীর্তি আর ধর্ম চর্চা; চাইলেই কি সম্ভব সবটা লেখায় ফুটিয়ে তোলা?
পুরনো গল্প বাদ, নতুন অধ্যায়ে ফেরা। লিটনকে সাথে নিয়ে যা করলেন, যা গড়লেন তা ইতিহাসের সেরা। ০ রানেই উইকেট হারানো দলটা দুই অঙ্ক ছোঁয়ার আগেই হারিয়ে ফেলে তামিম ইকবালের উইকেট। ১৬ রানে ৩য় হারানোর পর ২৪ রানেই হারায় পর পর ২ উইকেট। সেখান থেকে ২৭২ রানের জুটি গড়ে ক্রিকেট ইতিহাস বদলে ফেলা।
রেকর্ডটা বিব্রতকর, তবে স্বস্তির। বাংলাদেশের ৬ ব্যাটসম্যান আউট হয়েছেন যেখানে কোনো রান না করে! টেস্ট ইতিহাসে এক ইনিংসে এরচেয়ে বেশি শূন্য রানে আউট হবার নজির নেই আর। তবে ছয় ০ দেখেছে বিশ্ব ৬ বার। যার মাঝে আবার বাংলাদেশ দু’বার!
আবার ৬ শূন্যের ইনিংসে এর আগে ছিল না কোনো সেঞ্চুরি। বিপরীতে বাংলাদেশের পেলেন দুজন৷ আর টেস্টের নির্দিষ্ট এক ইনিংসে সবচেয়ে বেশি ব্যাটসম্যান শূন্য রানে আউট হওয়ার পরও সর্বোচ্চ দলীয় রান এখন বাংলাদেশের। সংখ্যাটা ৩৬৫৷’
যাহোক, ১৭৫ রানের ইনিংস খেলার পথে টেস্টে ১৫০ পেরোলেন পাঁচবার। দেশীয়দের মাঝে যা সর্বোচ্চ। ৩০০ বল খেলার পথে প্রথম বাংলাদেশী হিসেবে টেস্টে ঘরের মাঠে তিন হাজার রানের মাইলফলক স্পর্শ করেছেন মুশফিক৷ না জানি গড়েছেন আরো কত শত কীর্তি! তবে তার ব্যাটিংয়ে ছিল পরিপূর্ণ তৃপ্তি।
এমন ব্যাটিংই তো সবার চাওয়া। এমন ব্যাটিংই তো বড় পাওয়া। তবুও রানের চাপে আত্মনিবেদন আর অনুশীলন পড়ে গেছে আড়ালে। আর তাকে ফুটিয়ে তোলা হলো না লেখাতে!

Lab Scan
ভাগ