ঝিকরগাছায় সালিশ বৈঠকে প্রতিপক্ষের হামলা ভাঙচুর নারীকে মারধর, ৫ জনের নামে মামলা

 

স্টাফ রিপোর্টার ॥ যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার লাউজানী পশ্চিমপাড়ায় জমি নিয়ে বিরোধের ঘটনায় সালিশের মধ্যে প্রতিপক্ষের হামলায় বাড়ি ঘর ভাঙচুর এবং আমেনা বেগম (৫৫) নামে এক নারীকে মারধরে জখম করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। আমেনা ওই গ্রামের ইসমাইল হোসেনের স্ত্রী।
এই ঘটনায় ৫জনের নাম উল্লেখ করে ঝিকরগাছা থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দেয়া হয়েছে। অভিযুক্তরা হলেন, একই গ্রামের আলী হোসেন (৫৫) ও তার দুই ছেলে মাসুম বিল্লাহ (২৫) ও বুকল হোসেন (২৩), রুহুল আমিনের ছেলে মিলন হোসেন (৩৬) এবং কাদের আলীর ছেলে ফজর আলী (৪৬)।
অভিযোগপত্রে আমেনা উল্লেখ করেছেন, আসামিদের সাথে গত দুই মাস ধরে জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। এই বিরোধ মিটানোর জন্য ঝিকরগাছা প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ইমরান রশিদ ও স্থানীয় ইউপি মেম্বার তবিবর রহমানের উপস্থিতিতে গত শনিবার বিকেলে এক সালিশ বৈঠক শুরু হয়। সালিশের মধ্যে আসামিরা অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে শুরু করে। ফলে একটি অপ্রীতিকর পরিবেশ সৃষ্টি হয়। এ কারণে ইমরান রশিদ ওই স্থান থেকে চলে যান। এরপরই আসামিরা গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতিতে লাঠি, ইট, বটির বাট, বাঁশের লাঠি দিয়ে আক্রমণ শুরু করে। বাড়িতে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। এতে টিনের চাল এবং তার মেয়ে জামাইয়ের মোটরসাইকেল ক্ষতিগ্রস্ত হয়। তিনি নিষেধ করলে আসামিরা তাকে মারধর করে চলে যায়। পরে গভীর রাতে ফের বাড়িতে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। তিনি জখম হলে ঝিকরগাছা হাসপাতালে ভর্তি হন। এই ঘটনায় তিনি ঝিকরগাছা থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।
এ বিষয়ে ঝিকরগাছা থানার ওসি সুমন ভক্ত জানিয়েছেন, লাউজানী পশ্চিমপাড়ায় দুই পক্ষের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছে। এই ব্যাপারে এক পক্ষ থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। ঘটনাটি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

Lab Scan
ভাগ