যশোর সমাজসেবা অফিসে পৌর কাউন্সিলরের নাম ভাঙিয়ে সিডিউল ক্রয়ে বাধা,যুবক আটক

স্টাফ রিপোর্টার ॥ যশোর জেলা সমাজসেবা অফিসে ৭ নম্বর ওয়ার্ডের পৌর কাউন্সিলর শেখ সাহেদ হোসেন নয়নের নাম করে সিডিউল ক্রয়ে বাধা ও চাঁদাদাবির অভিযোগে শহিদুল ইসলাম সুজন (৩০) নামে এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ। গত বুধবার শহরের বেজপাড়া চিরুনি কলের (চারখাম্বার মোড়) উত্তর পাশের সরকারি এই দফতর থেকে তাকে আটক করা হয়। আটক শহিদুল ইসলাম সুজন শহরের ঘোপ সেন্ট্রাল রোডের হাসেম মিয়ার ছেলে।
পুলিশ জানায়, ওই ঘটনায় কোতয়ালি থানার এসআই শংকর কুমার বিশ^াস থানায় মামলা করেছেন। মামলায় আটক শহিদুল ইসলাম সুজনসহ অজ্ঞাত আরও ৩/৪ জনকে আসামি করা হয়েছে।
মামলায় উল্লেখ করা হয়েছে, গত ১১ মে সিডিউল বিক্রির কাজ চলছিল জেলা সমাজসেবা অফিসে। এদিন বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে শহিদুল ইসলাম সুজনসহ অজ্ঞাত আসামিরা সেখানে গিয়ে লোকজনকে সিডিউল ক্রয়ে বাধা দানসহ চাঁদা দাবি করেন। তারা সিডিউল ক্রয়কারীদের নানা ধরনের হুমকি প্রদান করেন। এ খবর পেয়ে থানা পুলিশ সেখানে গিয়ে শহিদুল ইসলাম সুজনকে হাতেনাতে আটক করে। তবে পুলিশি উপস্থিতি টের পেয়ে অন্য আসামিরা পালিয়ে যায়।
এসআই শংকর কুমার সাংবাদিকদের জানান, আটক সুজন ওই অফিসে গিয়ে সিডিউল ক্রেতাদের নানাভাবে ভয় দেখায়। সে বলে ‘আমি কাউন্সিলর নয়নের লোক’। এরপর সিডিউল ক্রেতাদের কাছে চাঁদা দাবি করে।
এ বিষয়ে পৌর কাউন্সিলর শেখ শাহেদ হোসেন নয়ন সাংবাদিকদের জানান, ‘বুধবার সকালে পুলিশের কাছ থেকে জানতে পারি সুজন নামে একজনকে আটক করেছে। আমি সুজনকে চিনি না। এছাড়া তার বাড়ি ঘোপ সেন্ট্রাল রোডে। তার সাথে আমার কোনো সম্পর্ক নেই।’

Lab Scan
ভাগ