রেলের টিকিট বিক্রিকারী প্রতিষ্ঠানের ইঞ্জিনিয়ারই কালোবাজারিতে জড়িত!

লোকসমাজ ডেস্ক॥ রেলের টিকিট কালোবাজারির সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে রেলের টিকিট বিক্রিকারী প্রতিষ্ঠান ‘সহজ’র (সহজ-সিনেসিস-ভিনসেন জেভি) সিস্টেম ইঞ্জিনিয়ার রেজাউল করিম ও তার সহযোগী এমরানুল আলম স¤্রাটকে আটক করেছে র‌্যাব।
তাদেরকে কমলাপুর ও বিমানবন্দর থেকে আটক করা হয় বলে বৃহস্পতিবার (২৮ এপ্রিল) নিশ্চিত করেছেন র‌্যাব-১-এর সিইও আবদুল্লাহ আল মোমেন।
তিনি জানান, রেজাউল করিম এর আগের টিকিট বিক্রিকারী প্রতিষ্ঠান সিএনএস বিডিতেও কর্মরত ছিলেন। প্রতি ঈদ মৌসুমে তিনি ২ থেকে ৩ হাজার টিকিট অবৈধ উপায়ে সরিয়ে নিতেন, যার মাধ্যমে ১০ থেকে ১২ লাখ টাকার মতো আয় করতেন।
নিজের পরিচিত লোকজন এবং স্বজনদের কাছে টিকিট বিক্রি করার পাশাপাশি বেশকিছু কালোবাজারির কাছেও টিকিট বিক্রি করতেন রেজাউল।
এদিকে, রেলের টিকিট বিক্রিতে কালোবাজারির অভিযোগে রেজাউল করিমকে চাকরিচ্যুত করেছে সহজ কর্তৃপক্ষ।
এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে সহজ-সিনেসিস-ভিনসেন জেভির পক্ষে বলা হয়, টিকিট কালোবাজারির অভিযোগে কমলাপুর রেলস্টেশন থেকে র‌্যাবের হাতে আটক মো: রেজাউল করিম (রেজা) সহজ-সিনেসিস-ভিনসেন জেভির নিয়োগ করা একজন সিস্টেম ইঞ্জিনিয়ার। এই অপ্রীতিকর ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছে সহজ-সিনেসিস-ভিনসেন জেভি। অভিযুক্তকে চাকরিচ্যুত করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে টিকিট কালোবাজারির মতো ঘৃণ্য অপরাধ ও প্রডিতষ্ঠানের মানহানির অভিযোগে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
আরো বলা হয়, রেজাউল করিম প্রায় ৫ বছর ধরে ট্রেনের টিকিট বিক্রির পূর্ববর্তী সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান সিএনএসের কর্মী হিসেবে বাংলাদেশ রেলওয়েকে সার্পোট দেয়ার কাজে নিয়োজিত ছিলেন। আর তাই রেল ব্যবস্থাপনার কাজ সুষ্ঠুভাবে এবং অভিজ্ঞ কর্মী দ্বারা পরিচালনার লক্ষ্যে সহজ-সিনেসিস-ভিনসেন জেভি গত ২১ মার্চ তাকে নিয়োগ দেয়।

Lab Scan
ভাগ