৫ উইকেট হারিয়ে দ্বিতীয় দিন শেষ করলো বাংলাদেশ

লোকসমাজ ডেস্ক॥ নিয়মিত বিরতিতে একের পর উইকেট হারিয়ে দারুণ বিপর্যয়ে বাংলাদেশ দল। পোর্ট এলিজাবেথের সেন্ট জর্জ পার্কে দক্ষিণ আফ্রিকার করা ৪৫৩ রানের বিশাল স্কোরের নিচে চাপা পড়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল ১২২ রান তুলতেই হারিয়েছে ৫ উইকেট। দ্বিতীয় দিন শেষ করেছেন বাংলাদেশ ১৩৯ রানে। বাংলাদেশ দলের আশার প্রদীপ হয়ে জ্বলছেন মুশফিকুর রহিম। ৫৫ বলে ৩০ রান নিয়ে ব্যাট করছেন তিনি। তার সঙ্গে ৮ রান নিয়ে ব্যাট করছেন ইয়াসির আলি রাব্বি।
প্রথম ইনিংসেই ৪৫৩ রানের বিশাল স্কোরের নিচে চাপা পড়েছে বাংলাদেশ। তবে, পোর্ট এলিজাবেথের সেন্ট জর্জ পার্কের উইকেট মোটামুটি ব্যাটিং বান্ধব- এটা বলাই যাচ্ছিল। সে কারণে সবার প্রত্যাশা ছিল যে বাংলাদেশের ব্যাটাররাও প্রতিরোধ গড়তে পারবে। কিন্তু শুরুতেই সে আশার গুড়ে বালি। ডারবান টেস্টের প্রথম ইনিংসে সেঞ্চুরিয়ান মাহমুদুল হাসান জয় কোনো রান না করেই আউট হয়ে গেলেন। সেঞ্চুরি করার পর এ নিয়ে টানা দুই ইনিংসে শূন্য রানে আউট হলেন তিনি। দলীয় ৩ রানের মাথায় দুয়ানে অলিভিয়েরের বলে জয়ের উইকেট হারানোর পর শঙ্কা জেগেছিল, এটা কী কোনো শঙ্কাজনক চিত্রের শুরু মাত্র? কিন্তু না, সে শঙ্কাকে উড়িয়ে দেয়ার চেষ্টা করেছেন আরেক ওপেনার তামিম ইকবাল এবং ওয়ান ডাউনে নামা নাজমুল হোসেন শান্ত।
গত বছর এপ্রিল-মে মাসে সর্বশেষ টেস্ট খেলেছিলেন তামিম। প্রায় এক বছর বিরতি দিয়ে আবারও টেস্ট আঙ্গিনায় বাংলাদেশের সেরা ওপেনার। তার ওপর তাই প্রত্যাশাও বেশি। সে প্রত্যাশার চাপ সামলে বাংলাদেশকে এগিয়ে নিচ্ছিলেন তামিম ইকবাল। কিন্তু হঠাৎ করেই দ্রুত তামিম এবং শান্ত- দু’জনেরই উইকেট হারিয়ে বসেছে বাংলাদেশ। ৭৯ রানের জুটি গড়েন তামিম-শান্ত। এর মধ্যে দলীয় ৮২ রানের মাথায় উইয়ান মালদারের বলে এলবিডব্লিউ আউটের শিকার হন তামিম ইকবাল। ৫৭ বলে ৪৭ রান করেন তিনি। যদিও চাইলে তিনি রিভিউ নিতে পারতেন। রিভিউতে দেখা গেছে, বল লেগ স্ট্যাম্প ঘেঁষে চলে গেছে। ঝুঁকিটা নিতে পারতেন তামিম। কিন্তু তিনি নিলেন না। এক ওভার বিরতি দিয়ে আবারও উইকেট নিলেন উইয়ান মালদার। এবার তিনি এলবিডব্লিউর শিকারে পরিণত করলেন নাজমুল হোসেন শান্তকে। ব্যাটকে ফাঁকি দিয়ে বল পায়ে আঘাত হানে। বোলারের আবেদনে আম্পায়ার সাড়া না দিলে রিভিউ নেয় দক্ষিণ আফ্রিকা। তাতে লাভ হলো তাদেরই। আউট হয়ে যান শান্ত। ৭৪ বলে ৩৩ রান করেন তিনি। মুমিনুল হক এবং মুশফিকুর রহিম মিলে জুটি গড়ার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হন। জুটিটা বড় হলো না। ১৫ রানের জুটি ভেঙে যায় মুমিনুল হক ৬ রানে আউট হওয়ার পর। এরপর ব্যাট করতে নামেন লিটন দাস। তিনিও বেশিক্ষণ টিকতে পারলেন না। মাত্র ১১ রান করে আউট হয়ে যান। প্রোটিয়াদের হয়ে উইয়ান মালদার ৬ ওভারে ১৫ রান দিয়ে ৩ উইকেট নেন। দুয়ানে অলিভিয়ের নেন ২ উইকেট। এর আগে প্রথম ইনিংসে ৪৫৩ রান করেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। তাইজুল ইসলামের ৬ উইকেট সত্ত্বেও কেশভ মাহারাজের ৮৪ রানের ঝড়ো ইনিংসের ওপর ভর করে এই স্কোর গড়ে তুলেছে প্রোটিয়ারা।

Lab Scan
ভাগ