বইমেলায় অভিনেত্রীর ভাইরাল হওয়া ভিডিও দেখলেন হাইকোর্ট

লোকসমাজ ডেস্ক॥ অমর একুশে বইমেলায় মডেল-অভিনেত্রী নাজিফা তুষিকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে জরিমানা এবং নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মনীষা রানী কর্মকারের সঙ্গে তর্কে জড়ানোর মুহূর্তের সেই ভাইরাল হওয়া ভিডিও দেখেছেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে ওই ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম থেকে আগামী সাতদিনের মধ্যে সরাতে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনকে (বিটিআরসি) নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার (১ মার্চ) বিচারপতি মামনুন রহমান ও বিচারপতি খোন্দকার দিলীরুজ্জামানের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ নির্দেশ দেন। এদিন রিট শুনানির সময় আদালতকে মোবাইলে থাকা এ ভিডিওটি দেখান তুষির পক্ষে রিটকারী আইনজীবী বদরুদ্দোজা বাবু। আদালত বলেন, যদি ওই নারী (নাজিফা তুষি) মনে করেন ভ্রাম্যমাণ আদালতের দণ্ডটি আইন অনুযায়ী হয়নি, তাহলে তিনি উপযুক্ত আদালতে প্রতিকার চাইতে পারেন।
এদিন আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন রিটকারী আইনজীবী বদরুদ্দোজা বাবু। বিটিআরসির পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার খন্দকার রেজা ই রাকিব। গত রোববার (২৭ ফেব্রুয়ারি) হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় বইমেলায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের জরিমানা করার ঘটনা চ্যালেঞ্জ করে আইনজীবীর মাধ্যমে রিট আবেদন করেন নাজিফা তুষি। বইমেলা শুরুর পঞ্চম দিন গত ১৯ ফেব্রুয়ারি দুপুরে মেলার সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশে করোনা বিধিনিষেধ ও স্বাস্থ্যবিধি কার্যকরবিষয়ক অভিযান পরিচালনা করছিলো ভ্রাম্যমাণ আদালত। এসময় স্বাস্থ্যবিধি না মানায় দর্শনার্থী ও প্রকাশনীর বিক্রয় প্রতিনিধিদের অপরাধের মাত্রা বুঝে অর্থদণ্ড দেওয়া হয়। ওইদিন একটি বইয়ের মোড়ক উন্মোচনে অতিথি হিসেবে অংশ নিতে মেলায় গিয়েছিলেন অভিনেত্রী নাজিফা তুষি। মাস্ক ব্যাগে রেখে ঘোরাঘুরির এক পর্যায়ে ভ্রাম্যমাণ আদালতের নজরে পড়েন তিনি। এসময় তুষিকে ২০০ টাকা অর্থদণ্ড করেন ঢাকা জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মনীষা রানী কর্মকারের নেতৃত্বে পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালত। তবে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনাকালে একজন নির্বাহী হাকিমের সঙ্গে তুষির তর্কে জড়ানোর ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমসহ ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়ে। এতে দেখা যায়, ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার সংবাদকর্মীরা ঘটনার ভিডিও ধারণ করলে মেজাজ হারিয়ে তুষি হাকিমকে বলেন, তাকে কেন জনসম্মুখে ‘হেনস্তা’ করা হচ্ছে? এসময় তুষির উদ্দেশ্যে ম্যাজিস্ট্রেট মনীষা বলেন, এখানে আদালত পরিচালনা হচ্ছে, এটি কোনো শুটিং নয়। আপনি স্বাস্থ্যবিধি মানছেন কি না, রাষ্ট্রের পক্ষ থেকে আমরা সেটা দেখছি। আপনাকে দণ্ডবিধি ১৮৬০ এর ২৬৯ ধারা অনুযায়ী ২০০ টাকা অর্থদণ্ড দিচ্ছি। করোনা কালীন মাস্ক না পরে মেলায় ঘোরাফেরার করার জন্য এসময় দুঃখ প্রকাশ করে অর্থদণ্ড পরিশোধ করেন তুষি। তবে সাংবাদিকদের ভিডিও ধারণ নিয়ে প্রতিক্রিয়ায় তুষি বলেন, জিনিসটা (ভিডিও) ভাইরাল হলো; অনেকেই এ নিয়ে কথা বলছে। আমার তো একটা পরিচয় আছে, ব্যক্তিগত জীবন আছে। আমার ভুল হতে পারে, সেটা যে কোনো মানুষেরই হতে পারে। কিন্তু আমার সঙ্গে খোলামেলা কথা বলেন। বারবার বলা সত্ত্বেও ক্যামেরায় শুট করা হচ্ছিল। পরে আমার বন্ধুরাও এসেছিল, ওদের সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয়। জরিমানার শিকার এ মডেল-অভিনেত্রীর ভাষ্য, আমি তাকে (ম্যাজিস্ট্রেট) বলেছিলাম, আমার কোনো পানিশমেন্ট হলেও সাইডে গিয়ে কথা বলেন। কিন্তু উনি সেটি করছিলেন না। প্রকাশ্যে ভিডিও করা হচ্ছিলো। অথচ আমি অর্থদণ্ডও দিলাম। অনেক মানুষের সামনে, অনেক ক্যামেরার সামনে আমাকে বারবার হয়রানি করা হচ্ছিলো। তখন আমি শাউট করে বলছিলাম, ‘আমাকে হ্যারাস কেন করছেন? আমাকে ফাইন করেন, আমি টাকা দিয়ে দিচ্ছি।’ ‘মেলায় আরও মানুষ ছিল কোনো মাস্ক পরেনি। এমনকি পুলিশ সদস্যদেরও অনেকে মাস্ক পরেনি। সেটাও বলছি না। কিন্তু আমার পারমিশন ছাড়া সেটা ক্যামেরায় কেন নেবেন।’ ২০১৬ সালে ‘আইসক্রিম’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করে আলোচনায় আসেন তুষি। ‘নেটওয়ার্কের বাইরে’ শিরোনামের একটি ওয়েব সিরিজেও কাজ করেন তিনি। তার একাধিক চলচ্চিত্র মুক্তির অপেক্ষায়।২০১৪ সালে একটি সৌন্দর্য বিষয়ক প্রতিযোগিতা থেকে শোবিজ অঙ্গনে উঠে আসেন তুষি। নিয়মিত কাজ করছেন বিজ্ঞাপন ও টিভি নাটকে।