চোখের জ্যোতি বাড়াতে পারে পেঁয়াজ, আদার রস! রয়েছে আরও অনেক উপকার!

লোকসমাজ ডেস্ক॥ আমাদের প্রত্যেকের বাড়িতে এমন সব গুণি খাদ্য উপাদান রয়েছে যা শরীরের অনেক উপকার করে। যেমন পেঁয়াজ ও আদার রসের (Onion and Ginger Juice) কথাই ধরুন। এই রস শরীরের জন্য উপকারী। আসুন সেই উপকার সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক।
আমাদের জীবনযাত্রা খুবই খারাপ। আর এই খারাপ জীবনযাত্রার প্রভাব সরাসরি পড়ছে শরীরের উপর। দেখা দিচ্ছে কোনও না কোনও রোগ। এখন এমন একটি লোক পাওয়া সত্যিই দুষ্কর যাঁর কোনও শারীরিক সমস্যা নেই। রোজই বাড়ছে চিকিৎসকের চেম্বারের বাইরে ভিড়। তাই সতর্ক হওয়া ছাড়া উপায় নেই।
যদিও বিশেষজ্ঞরা বলছেন, আমাদের হাতের সামনেই এমন সব ভেষজ (Herbs) রয়েছে যা বিভিন্ন ধরনের রোগ থেকে খালি মুক্তিই দেয় না বরং রোগ দূর করতেও সাহায্য করে।
এক্ষেত্রে আদা এবং পেঁয়াজের কথা প্রথমেই আসবে। এই দুই খাদ্য উপাদান আমাদের একেবারেই হাতের কাছের জিনিস। রোজই বাড়িতে ব্যবহার হচ্ছে এই সবজি। যদিও বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এই দুই সবজিকে মানুষ খুব হেলাফেলা করেন। কোনও পাত্তাই দিতে চান না। যদিও এক্ষেত্রে আদা ও পেঁয়াজ মিলেমিশে আমাদের জীবনের বড়বড় সমস্যার সমাধান করতে পারে।
তবে এক্ষেত্রে রান্নায় আদা, পেঁয়াজ খাওয়ার বদলে খেতে হবে রস করে (Onion and Ginger Juice)। এই দুইয়ের রস শরীরের বিভিন্ন সমস্যা দূর করতে পারে। এবার আসুন জেনে নেওয়া এই জ্যুসের লাভ সম্পর্কে।
চুলের জন্য ভালো
আদা, পেঁয়াজের রসে রয়েছে ভরপুর পুষ্টি উপাদান। এই পুষ্টি উপাদান চুলের যত্নে ভীষণ কার্যকরী। এক্ষেত্রে চুলের কোষ নতুন করে তৈরি করতে পারে এই রস। এছাড়া চুলের গ্রোথ বাড়াতেও এই রসের জুড়ি মেলা ভার। পাশাপাশি চুলের গোড়া মজবুত করতে পারে এই রস। তাই চুল কম পড়ে। এক্ষেত্রে আদা, পেঁয়াজের রস একবার চুলে মেখে নিয়ে কিছুক্ষণ বাদে শ্যাম্প করে ধুয়ে নিলেই হয়ে যাবে সমস্যার সমাধান।
চোখের জন্য ভালো
বিভিন্ন গবেষণা দেখা গিয়েছে, আদা, পেঁয়াজের রসে এমন কিছু গুণ রয়েছে যা চোখের খেয়াল রাখতে পারে। এক্ষেত্রে এই রস শরীরে গ্লুটাথিয়ন তৈরি করে। এই উপাদানটি চোখের জন্য ভালো। এছাড়া এই রসে থাকা ভরপুর অ্যান্টিঅক্সিডেন্টও চোখের সমস্যা প্রতিরোধ করতে পারে। তাই চোখের সমস্যা দূরে রাখতে চাইলে আপনি রোজ খেতে পারেন এই রস।
গর্ভবতী মহিলাদের জন্য ভালো
আদা, পেঁয়াজের রস গর্ভবতী মহিলাদের জন্যও ভীষণই ভালো। এরমধ্যে থাকা ভিটামিন ও মিনারেলের প্রাচুর্য সন্তানসম্ভবার শরীর ঠিক রাখে। শরীরে পৌঁছে দেয় পর্যাপ্ত পুষ্টি। এমনকী এই পরিস্থিতিতে রোগ প্রতিরোধ করার ক্ষেত্রেও দারুণ উপকারী এই রস। তবে বলে রাখি, গর্ভাবস্থায় নিজে নিজে এই ধরনের রস খাওয়ার চেষ্টা করবেন না। বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন। তাঁর কথা মতো চলুন।
স্পার্ম কাউন্ট বাড়ায়
এই রস পুরুষের জীবনে বিরাট বদল আনতে পারে। এই রসে থাকে পুষ্টিগুণ, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, অ্যান্টিইনফ্লেমেটরি গুণ পুরুষের স্পার্ম কাউন্ট বাড়ায়। তাই আর চিন্তা নেই। রোজ খেয়ে নিন এই রস।
রক্তের অভাব দূর করে
বহু মানুষের শরীরে পর্যাপ্ত রক্তের অভাব হয়। তবে দেখা গিয়েছে, এই রস খেলে শরীরে রক্তের ঘাটতি মেটে। এমনকী রক্তের সংবহণও ঠিক মতো হয়। তাই আজ থেকেই শুরু করে দিন এই রস খাওয়া।

Lab Scan
ভাগ