সাত প্রতিষ্ঠান থেকে ১৫ লাখ টন জ্বালানি তেল কিনছে সরকার

লোকসমাজ ডেস্ক॥ বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশনের (বিপিসি) মাধ্যমে জি-টু-জি ভিত্তিতে ৮ হাজার ৯২৯ কোটি ৭১ লাখ টাকা ব্যয়ে সাতটি প্রতিষ্ঠান থেকে ১৫ লাখ ৮০ হাজার টন পরিশোধিত জ্বালানি তেল কিনবে সরকার। ভারত, চীন, ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া, আরব আমিরাত এবং থাইল্যান্ড থেকে এসব তেল কেনার দুটি পৃথক প্রস্তাবে অনুমোদন দিয়েছে সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি।
বুধবার (১২ জানুয়ারি) দুপুরে অর্থমন্ত্রীর সভাপতিত্বে ভার্চুয়ালি অর্থনৈতিক বিষয়ক সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির সভায় এ প্রস্তাবগুলোর অনুমোদন দেওয়া হয়। বৈঠক শেষে অনুমোদিত প্রস্তাবগুলোর বিস্তারিত সাংবাদিকদের তুলে ধরেন মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মো. সামসুল আরেফিন।
তিনি জানান, অর্থনৈতিক বিষয় সংক্রান্ত কমিটির অনুমোদনের জন্য ১টি এবং ক্রয় সংক্রান্ত কমিটির অনুমোদনের জন্য ১৩টি প্রস্তাব উত্থাপন করা হয়েছে। ক্রয় প্রস্তাবগুলোর মধ্যে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের ৭টি, বিদ্যুৎ বিভাগের ৩টি, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের ২টি এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের ১টি প্রস্তাবনা ছিল। ক্রয় কমিটির অনুমোদিত ১৩টি প্রস্তাবে মোট অর্থের পরিমাণ ১০ হাজার ৭৯৪ কোটি ৮৪ লাখ ৮৩ হাজার ২৯৮ টাকা। মোট অর্থায়নের মধ্যে জিওবি হতে ব্যয় হবে ৯ হাজার ৫৮৯ কোটি ৬৬ লাখ ২৬ হাজার ৭৭ টাকা এবং ভারত থেকে ঋণ ১,২০৫ কোটি ১৮ লাখ ৫৭ হাজার ২২১ টাকা।
অতিরিক্ত সচিব আরও বলেন, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের অধীন বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশনের (বিপিসি) মাধ্যমে জি-টু-জি ভিত্তিতে ৬টি রাষ্ট্রায়ত্ত্ব প্রতিষ্ঠান (পিটিটি থাইল্যান্ড, ইএনওসি আরব আমিরাত, পেট্রোচিনা, বিএসপি, ইন্দোনেশিয়া, পিটিএলসিএল মালয়েশিয়া ও ইউনিপেক চীন) এর কাছ থেকে ২০২২ সালের জানুয়ারি থেকে জুন সময়ের জন্য ১৪ লাখ ৯০ হাজার মেট্রিক টন পরিশোধিত জ্বালানি তেল ৮ হাজার ৪১৭ কোটি ২৩ লাখ টাকায় আমদানির প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।
এছাড়া ভারতের রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠান নুমালীগড় রিফাইনারি লিমিটেডের (এনআরএল) কাছ থেকে ৯০ হাজার মেট্রিক টন ডিজেল (০.০০৫% ‘সালফার’) ৫১২ কোটি ৪৮ লাখ টাকায় আমদানির অনুমোদন দেওয়া হয়েছে
অতিরিক্ত সচিব মো. সামসুল আরেফিন জানান, আজকের সভায় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের অধীন বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষ কর্তৃক ৮টি জেলায় ৮টি স্টিলস্ট্রাকচার বিশিষ্ট মাল্টিপারপাস বিল্ডিং নির্মাণের পূর্ত কাজ ভারতের লারসেন অ্যান্ড টুব্রো লিমিটেডের কাছ থেকে এক হাজার ২০৫ কোটি ১৮ লাখ ৫৭ হাজার ২২১ টাকার একটি ক্রয় প্রস্তাবের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।
আট জেলায় হাইটেক পার্কের জন্য ঠিকাদার নিয়োগে পাঁচ বছর বিলম্বের বিষয়ে জানতে চাইলে অর্থমন্ত্রী বলেন, সবকিছু বিবেচনায় নিয়ে এটি করা হয়েছে। আগে বিভিন্ন কারণে বিলম্বিত হয়েছে এবং সেখানে কিছু কাজ আমরা শুরু করেছি। বাকিগুলো করার জন্য আজ আমরা অনুমোদন দিয়েছি। বিভিন্ন কারণে এটি বিলম্ব হয়েছে। ভারত অবশ্যই টাকা দেবে। এখন যাদের দেওয়া হচ্ছে, লারসেন অ্যান্ড টাব্রো নামকরা একটি কোম্পানি। আমার মনে হয় এবার এই প্রকল্পটি নিয়ে এগুতে পারবো।

Lab Scan
ভাগ