এই প্রথম মুখ খুললেন ডি ভিলিয়ার্স, জানালেন অবসরের কারণ

লোকসমাজ ডেস্ক॥ আচমকা দিয়েছিলেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসরের ঘোষণা। সব ধরনের ক্রিকেটকে বিদায় জানানোটাও হঠাৎই দিয়েছেন এবি ডি ভিলিয়ার্স। ২২ গজ ছাড়ার ঘোষণা দেওয়ার পর এই প্রথম মুখ খুলেছেন সাবেক দক্ষিণ আফ্রিকান অধিনায়ক। জানিয়েছেন, ২০২১ সালের আইপিএলই বুঝতে পেরেছিলেন ক্রিকেট আর উপভোগ করতে পারছেন না। ডি ভিলিয়ার্সের কাছে ক্রিকেট শুধু জয়-পরাজয়ের জায়গা নয়, আনন্দ-উপভোগেরও। নিজের সেই তৃপ্তির জায়গায় যখন টান পড়েছে দেখছেন, আর সময় নেননি। জানিয়ে দেন সব ধরনের ক্রিকেট ছেড়ে দিচ্ছেন। ক্রিকেট ইতিহাসের অন্যতম সেরা ব্যাটার টেস্ট, ওয়ানডে, টি-টোয়েন্টি, ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেট- সব জায়গায় নিজের ছাপ রেখেছেন। ২০২১ সালের আইপিএল শেষে প্রতিযোগিতাটির সবচেয়ে বড় নিলামের অপেক্ষায় ক্রিকেটপ্রেমীরা। দল বাড়ায় প্রতিদ্বন্দ্বিতাও বাড়তে যাচ্ছে। তো দলগুলো কোন খেলোয়াড়দের রেখে দেয়, সেটা জানার কৌতূহল ছিল। বিশেষ করে, রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর ভক্তরা জানার অপেক্ষায় ছিলেন, ডি ভিলিয়ার্সকে দল রেখে দেয় কিনা। উত্তর জানতে বেশিদিন অপেক্ষায় থাকতে হয়নি। ফ্র্যাঞ্চাইজিটি জানিয়ে দেয় তারা শুধু তিন ক্রিকেটার- বিরাট কোহলি, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল ও মোহাম্মদ সিরাজকে ধরে রাখছে।
তারপরও ডি ভিলিয়ার্সের ভক্তরা জানার অপেক্ষায় ছিলেন তাদের প্রিয় ক্রিকেটারের আইপিএলের নতুন ঘর কোথায় হয়। কিন্তু সাবেক প্রোটিয়া ব্যাটার গত বছরের নভেম্বরে জানিয়ে দেন, তিনি আর ক্রিকেটই খেলবেন না। ৩৭ বছর বয়সী ডি ভিলিয়ার্স অবসরের ঘোষণার পর এই প্রথম মুখ খুলেছেন মিডিয়ায়। দক্ষিণ আফ্রিকার এক সংবাদমাধ্যমকে তিনি জানিয়েছেন, আইপিএল খেলার সময়ই বুঝতে পেরেছিলেন অবসরের সময় এসেছে। তিনি বলেছেন, ‘ক্রিকেটের দিক থেকে দেখলে, এটা (অবসরের) অনেক সময় ধরেই মনে আসছিল। আসলে খেলাটা আমার কাছে উপভোগের ব্যাপার। যখন একটা সময়ে এসে মনে হলো এক জায়গা থেকে আরেক জায়গায় যাওয়াটা আমার কাছে কঠিন মনে হচ্ছে এবং আইপিএল দুই ভাগে ভাগ করে আয়োজন করা হলো, তাতে বায়ো বাবলের মধ্যে থেকে বিষয়গুলো আরও জটিল হয়ে উঠলো, তখন আসলে উপভোগের সেই জায়গা আর থাকলো না।’ ২০২১ সালে আইপিএল দুই ভাগে আয়োজন করা হয়েছিল। করোনাভাইরাসের কারণে ভারতে আয়োজিত আইপিএল ‍স্থগিত হয়ে যায়। এরপর সেই আইপিএল সংযুক্ত আরব আমিরাতে ফেরে ছয় মাস পর। এই সময়টায় শারীরিকের চেয়ে মানসিক পরীক্ষা বেশি দিতে হয়েছে ডি ভিলিয়ার্সকে।

Lab Scan
ভাগ