দৌলতপুরে গরুর মাংস খেয়ে অ্যানথ্রাক্স আক্রান্ত ১০

কুষ্টিয়া সংবাদদাতা॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে অসুস্থ গরুর মাংস খেয়ে শিশুসহ অন্তত ১০জন অ্যানথ্রাক্স রোগে আক্রান্ত হয়েছেন। আক্রান্তরা নিজ নিজ বাড়িতেই চিকিৎসা নিচ্ছেন। তবে রোগীর সংখ্যা প্রতিদিনই বাড়ছে বলে জানিয়েছে স্থানীয়রা। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মো. তৌহিদুল হাসান তুহিন রোববার (২৬ সেপ্টেম্বর) বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
জানা গেছে, দৌলতপুর উপজেলার প্রাগপুর ইউনিয়নের গোপালপুর গ্রামে ৮ দিন আগে রহিম হোসেন তার একটি অসুস্থ গরু জবাই করে স্থানীয়দের মাঝে মাংস বিক্রি করেন। ওই গরুর মাংস খাওয়ার পর ১০জন অসুস্থ হয়ে পড়েন। অসুস্থ ব্যক্তিদের হাতসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে ক্ষত দেখা দেয়। পরে তাদের দৌলতপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। সে সময় হাসপাতালের চিকিৎসকরা রোগটিকে অ্যানথ্রাক্স বলে চিহ্নিত করেন। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মো. তৌহিদুল হাসান তুহিন বলেন, উপজেলার গোপালপুর এলাকার কয়েকজন শরীরে ক্ষত নিয়ে হাসপাতালে এসেছিলো। তাদের শরীরের ক্ষত দেখে অ্যানথ্রাক্স রোগের লক্ষন পাওয়া গেছে। এদিকে প্রতিদিনই এ রোগে আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ায় এলাকাবাসীর মাঝে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে।

Lab Scan
ভাগ