আটক প্রবাসীদের মুক্তির দাবি নুরের

লোকসমাজ ডেস্ক॥ ৫৪ ধারায় আটক প্রবাসীদের মুক্তির দাবি জানিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সহ-সভাপতি (ভিপি) নুরুল হক নুর বলেছেন, বিপদে পড়া প্রবাসীদের যখন বাইরের দেশে সরকার বিমান ভাড়া করে দেশে পাঠায়, সেখানে ভোট ডাকাতির সরকার তাদের গ্রেফতার করেছে। এটা অন্যায়। বুধবার (৯ সেপ্টেম্বর) জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে বাংলাদেশ যুব অধিকার পরিষদ আয়োজিত বিতর্কিত ৫৪ ধারায় আটক প্রবাসীদের মুক্তির দাবিতে এক মানববন্ধনে এসব কথা বলেন তিনি। মানববন্ধনে বাংলাদেশ যুব অধিকার পরিষদের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।
নুর বলেন, প্রবাসীদের রেমিট্যান্সযোদ্ধা বলা হয়। কিন্তু আমরা দেখলাম করোনাকালীন কারো হয়তো ভিসার মেয়াদ শেষ হয়েছে, ওয়ার্ক পারমিট বাতিল হয়ে গেছে। নানাভাবে সেই দেশের সরকার তাদের ক্ষমা করে দিয়েছে। এমনকি বিমান ভাড়া করে তাদের দেশে পাঠিয়েছে। অথচ আমাদের দেশের সরকার তাদের গ্রেফতার করেছে। এখন যদি বলেন, প্রবাসীদের কেন গ্রেফতার করা হলো, তাহলে বলবো দেশের মধ্যে মামলা-হামলা দিয়ে দেশের মানুষকে কোণঠাসা করে রাখা হয়েছে। মানুষ কথা বলতে পারছে না। তিনি আরও বলেন, বিএনপির মতো একটি বড় দলের নেত্রীর জামিন নিয়ে সরকার চোর-পুলিশ খেলছে। ছয় মাসের জামিন দিয়ে বিএনপিকে একটা রশি ঝুলিয়ে দিয়েছে। তারা যদি রাজপথে আন্দোলন সংগ্রাম করে তাহলে খালেদা জিয়াকে ভেতরে নেবে। বিএনপির মতো একটি বড় দল, তাদের নেত্রীর প্রতি সফট কর্নার থাকবেই। ফলে তারা রাজপথে সোচ্চার হতে পারছে না।
নুর বলেন, আজকের গণমাধ্যম জেলখানায় বন্দি। কোনো সংবাদ তারা সরবরাহ করবে, কাকে টকশোতে ডাকবে, কার প্রোগ্রাম লাইভ যাবে, কাদের প্রোগ্রাম প্রচার করা যাবে ও যাবে না এ বিষয়ে গোয়েন্দা সংস্থা থেকে, সরকার থেকে তাদের নির্দেশনা দেয়া হয়। যে নির্দেশনা দেয়া হতো স্বৈরশাসক এরশাদের আমলে। আজকেও অলিখিতভাবে এই অবৈধ সরকারের সহচররা তাই করছে। গণমাধ্যমের টুটি চেপে ধরেছে। তিনি আরও বলেন, এমন একটা সময় আছে যেখানে আমরা ঘরেও নিরাপদ না। যেখানে স্থানীয় সরকারের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে ঘরে ঢুকে হাতুড়িপেটা করা হয়, সেখানে আপনি আমি তো কিছুই না। সেনাবাহিনীর একজন অবসরপ্রাপ্ত মেজরকে পুলিশ গুলি করে মারে। তাতেই বোঝা যায় এ দেশে আজকে কেউ নিরাপদ নয়।

Lab Scan
ভাগ