মুজিববর্ষ নিয়ে আওয়ামী লীগ রাজনীতি করছে: মান্না

লোকসমাজ ডেস্ক ॥ আওয়ামী লীগের উদ্দেশে নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না বলেছেন, মুজিববর্ষ নিয়ে রাজনীতি করেছেন তারা। মুজিববর্ষ যদি জাতীয় অনুষ্ঠান হয়ে থাকে তাহলে সেই অনুষ্ঠানে বেগম খালেদা জিয়া থাকতে পারতেন না? যত মুক্তিযোদ্ধা আছেন তারা থাকতে পারতেন না? বিএনপিসহ বিরোধী দলীয় নেতা যারা জেলে আছেন তারা থাকতে পারতেন না? তার একটারও ব্যবস্থা করবেন না। শুক্রবার (১৩ মার্চ) ঢাকা রিপোর্টাস ইউনিটিতে ‘করোনাভাইরাস: বাংলাদেশ এবং আন্তর্জাতিক পরিস্থিতি’ শীর্ষক মুক্ত আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।
করোনাভাইরাস প্রসঙ্গে মান্না বলেন, আমরা নতুন একটি বৈশ্বিক দুর্যোগে রয়েছি। আমাদের দেশে আমাদের পক্ষ থেকে যে ধরনের সহযোগিতা করা দরকার আমরা করবো। কিন্তু সমস্যা তো গভীর এবং সমস্যার ব্যাপারে বিস্তারিত আমরা কেউই জানি না। আমাদের প্রধানমন্ত্রী গতকাল বলেছেন, বাংলাদেশে মহামারির মতো সংকট নেই। তবে এই রোগ যদি মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়ে, সেই সঙ্কট মোকাবিলা করার মতো ক্ষমতা সরকারের নেই। এজন্য আমরা চিন্তিত। তিনি আরও বলেন, করোনাভাইরাস নিয়ে সরকার এতই যখন সচেতন তাহলে হেক্সিসল পাওয়া যায় না কেন? যেকোনো সময় হাত ধোয়া যায় সেই জাতীয় লিকুইড ক্যামিকেল একটিও বাজারে নেই। সরকার এ বিষয়ে কিছু করতে পারলো না। সরকার ডেঙ্গু থেকে আমাদের রক্ষা করতে পারেনি। করোনা থেকে আমাদের রক্ষা করতে পারবে না। ওরা ভোট নিয়ে মিথ্যাচার করে। ওরা মানুষের ভোট ডাকাতি করে নিয়ে যায়। মানুষের জীবনের কোন মূল্য দেয় না। এখন করোনা নিয়ে রাজনীতি করতে। করোনা থেকে মানুষকে রক্ষা করার চেষ্টা করছে না। নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক বলেন, আন্তরিকভাবে আমরা চাই করোনাভাইরাস যাতে আমাদের দেশে মহামারি আকারে বিস্তার না করে। একই সঙ্গে আমরা বলতে চাই করোনা আক্রান্ত হয়ে মানুষ মারা গেলে যেমন আমরা কষ্ট পাবো ঠিক তেমনি বিনা চিকিৎসায় বেগম খালেদা জিয়া মারা গেলে আমরা ক্ষুব্ধ হব।
তিনি বলেন, বাংলাদেশের করোনাভাইরাসের রোগী ৮ মার্চ ঘোষণা হয়েছে। ৮ তারিখে ঘোষণা দিয়ছেন সেই রোগী তারা কবে শনাক্ত করেছেন? যারা আক্রান্ত হয়েছেন তাদের একজন ২৬ ফেব্রুয়ারি বিমানবন্দর দিয়ে বাংলাদেশ প্রবেশ করেছেন। উনি কি সেদিন শনাক্ত হয়েছেন? যদি শনাক্ত হয়ে থাকেন তাহলে ২৭ তারিখ ২৮ তারিখে বলা হবে না কেন? তার কথা ৮ মার্চ বলা হলো কেন? দ্বিতীয় যে যাত্রী শনাক্ত হয়েছেন তিনি কবে ইতালি থেকে বাংলাদেশে প্রবেশ করেছেন? উনি কি বিমানবন্দরে শনাক্ত হয়েছেন? বিমানবন্দরে শনাক্ত না হলে কোথায় হলেন? সারা বাংলাদেশের মধ্যে একমাত্র মহাখালী ছাড়া কোথায় শনাক্ত করার জায়গা আছে? আলোচনা সভায় অন্যদের মধ্যে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, যুগ্ম মহাসচিব মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ নাগরিক অধিকার আন্দোলনের চেয়ারম্যান কৃষিবিদ মেহেদী হাসান পলাশ প্রমুখ বক্তৃতা করেন।