বসন্ত ও ভালোবাসা মিলেমিশে উৎসবমুখর যশোর

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বসন্তের আগমনী দিন ও ভালোবাসা দিবস মিলেমিশে গতকাল উৎসবমুখর হয়ে ওঠে যশোর। দিনটি সাপ্তাহিক ছুটির দিন শুক্রবার হওয়ায় উচ্ছ্বাসের মাত্রাও ছিল বেশি। সব বয়সের মানুষ দিবসটিতে নিজেদের রাঙান পুষ্পরাজীতে নানান সাজে। এছাড়া ব্যতিক্রমী কিছু উদ্যোগ নজর কেড়েছে অনেকের। জেলা রেড ক্রিসেন্ট চত্তরে ভালোবাসা দিবস উপলে রক্তদান উৎসবের আয়োজন করা হয় এবং বৃপ্রেমী হিসেবে পরিচিত ওয়াহিদ সরদার গাছ বিতরণ করে নিজের ভালোবাসা প্রদর্শন করেন।
গতকাল সকাল থেকে যশোর শহরের পৌর উদ্যানে ছিল সব বয়সের মানুষের ভিড়। পসরা সাজিয়ে ছিলেন সৌখিন ফুল বিক্রেতারা। তাদের কাছ থেকে ফুল কিনে নিজেদের সাজান উৎসবমুখর মানুষেরা। শহরের বাইরে জেস গার্ডেন, বিনোদিয়া পার্ক, বোট গার্ডেনসহ অন্যান্য বিনোদন কেন্দ্রগুলোতেও ছিলো তরুন-তরুনীসহ নানা বয়সের মানুষের ভিড়। তারা সবাই মন উজাড় করে ঘুরেছেন। অনেকে বিশেষ এই দিনটিতে বাসন্তি রঙের শাড়ি ও পাঞ্জাবি পরে ঘুরতে বের হন। বিশেষ এই দিনটিতে যশোর শহরের দড়াটানা, গাড়ীখানা সড়কসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ মোড়গুলোতে অসংখ্য ফুলের দোকান চোখে পড়ে। পহেলা ফাল্গুন আর ভালোবাসা দিবসকে রাঙাতে নানা রঙের ফুল কিনতে এসব দোকানে এসে ভিড় জমান তরুন-তরুনীরা। ব্যবসায়ীরাও বিশেষ এ দিনটিকে সামনে রেখে দৃষ্টি নন্দন ফুলের সমাহার ঘটান। তবে ফুলের দাম অন্যান্য বছরের চেয়ে বেশি হওয়ায় অনেক ক্রেতা বিরক্ত প্রকাশ করেন। তানহা সিলভি মায়া নামে এক তরুনী বলেন, অন্যান্য বছরে একটি গোলাপ ১০ থেকে ১৫ টাকা দিয়ে কিনলেও আজ কিনতে হচ্ছে ৩০ টাকা দিয়ে। জারবেরা, রজনী গন্ধা, গ্লাডিউলাস ফুলেরও একই অবস্থা। তারপরও কিনতে হচ্ছে, বিশেষ দিনের জন্য। তবে ফুল বিক্রেতারা বলেন, এবছর মাত্রাতিরিক্ত শীত ও কুয়াশার কারণে গোলাপসহ অন্যান্য ফুলের ফলন বিপর্যয় হয় যেকারণে ফুলের দাম পাইকার বাজারে বেশি থাকায় এ সমস্যা হয়েছে। এদিকে বসন্ত ও ভালোবাসা দিবসে ব্যতিক্রম এক আয়োজন করে প্রশংসা কুড়িয়েছেন যশোরের সুপরিচিত গাছ দরদী ওয়াহিদ সরদার। দিবসটিতে তিনি যশোরে বিনোদন কেন্দ্রে গিয়ে যুগলদের মাঝে গাছের চারা বিতরণ করেন। যুগলদের গাছের প্রতি, পরিবেশের প্রতি ভালোবাসা প্রকাশে গাছ লাগানোর আহ্বান জানিয়ে গাছের চারা বিতরণ করেন তিনি। তার এ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন যশোরের সর্বস্তরের মানুষ।
ওয়াহিদ সরদার জানান, গত দুই মাস আগে বাড়ি থেকে বের হয়েছেন তিনি। ফেরি করে তিনি দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে গিয়ে গাছের পেরেক তুলে বেড়ান। ভালোবাসা দিবসে নতুন চিন্তার উদ্রেক হওয়ায় তিনি ফিরে এসেছেন যশোর শহরে। তিনি বিশ্ব স্বীকৃত ভালোবাসা দিবসে যুগলদেও মাঝে গাছের চারা বিতরণ করে গাছের প্রতি ভালোবাসার প্রচারণা চালাচ্ছেন। ওয়াহিদ সরদারের গাছ বিতরণের পাশাপাশি আরেকটি উদ্যোগ দৃষ্টি কাড়ে যশোরের নাগরিকদের। সেটি ছিলো ভালোবাসা দিবসে স্বেচ্ছায় রক্তদান উৎসব। রেডক্রিসেন্ট সোসাইটি যশোর ইউনিট, আমার যশোর এবং উৎসব টেকনোলজিস যৌথভাবে এ আয়োজন করে। শুক্রবার সকালে রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি প্রাঙ্গণে রক্তদান উৎসবের উদ্বোধন করেন যশোর পৌরসভার মেয়র জহিরুল ইসলাম চাকলাদার রেন্টু। এসময় সেখানে উপস্থিত ছিলে প্রেসকাব যশোরের সম্পাদক আহসান কবীর, দৈনিক গ্রামের কাগজ সম্পাদক মবিনুল ইসলাম মবিনসহ অন্যান্যরা। সকাল থেকে উৎসাহিরা ভিড় জমান রক্ত দিতে। তারা একে অপরের প্রতি ভালোবাসার নিদর্শন হিসেবে স্বেচ্ছায় রক্তদান করেন।

Lab Scan
ভাগ