৭৫ লাখ কেজি চাল রফতানির লক্ষ্য থাইল্যান্ডের

লোকসমাজ ডেস্ক॥ থাইল্যান্ড বিশ্বের দ্বিতীয় শীর্ষ চাল রফতানিকারক দেশ। এবারের মৌসুমে দেশটির চাল উৎপাদনকারী অঞ্চলগুলোয় তীব্র খরা চলছে। উৎপাদন ব্যাহত হওয়ার জোরালো সম্ভাবনা রয়েছে। এ পরিস্থিতিতে ২০২০ সালে ৭৫ লাখ কেজি চাল রফতানির লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে থাই রাইস এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন। খবর ব্যাংকক পোস্ট ও সিনহুয়া।
প্রতিষ্ঠানটির এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, থাইল্যান্ডের উত্তর, উত্তর-পূর্ব ও মধ্যাঞ্চলে খরা চলছে। দেশটির এসব অঞ্চলে সবচেয়ে বেশি চাল উৎপাদন হয়। খরার কারণে উৎপাদন ব্যাহত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। একই সঙ্গে থাই বাথের (স্থানীয় মুদ্রা) মান ক্রমেই কমে আসা এবং ভারত, ভিয়েতনাম, মিয়ানমার ও চীনের মতো চাল রফতানিকারক দেশগুলোর সঙ্গে তীব্র প্রতিযোগিতা চলতি বছর দেশটি থেকে খাদ্যপণ্যটির রফতানি কমাতে পারে।
এর আগে ২০১৩ সালে থাইল্যান্ডের চাল রফতানিতে বড় পতন দেখা দিয়েছিল। ওই সময় দেশটি থেকে সব মিলিয়ে ৬৬ লাখ টন চাল রফতানি হয়েছিল, যা থাইল্যান্ডের ইতিহাসে সবচেয়ে কম। মার্কিন কৃষি বিভাগের (ইউএসডিএ) ফরেন এগ্রিকালচারাল সার্ভিস জানিয়েছে, গত বছর থাই রফতানিকারকরা সব মিলিয়ে ৮৫ লাখ কেজি চাল রফতানি করেছে, যা আগের বছরের তুলনায় ৩ দশমিক ৬৬ শতাংশ বেশি।

ভাগ