৫০ দিনের তীব্র শীতের ধকল কাটাতে হিমশিম চুয়াডাঙ্গা

0

রিফাত রহমান,চুয়াডাঙ্গা॥ চুয়াডাঙ্গার ওপর দিয়ে শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে। টানা ৫০ দিন এ জেলায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা অব্যাহত রয়েছে। সেই সঙ্গে চলছে শৈত্যপ্রবাহ। শৈত্য প্রবাহের কারণে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। সকাল থেকে সাধারণ মানুষ প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে বের হচ্ছেন না। এ রকম আবহাওয়ার কারণে জেলার সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষা কার্যক্রম বন্ধ ছিল। রোববার সকাল ৯টা পর্যন্ত চুয়াডাঙ্গায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৭ দশমিক ১ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এ সময় বাতাসের আর্দ্রতা রেকর্ড করা হয় ৯২ শতাংশ। এদিন সকাল ৬টায় জেলায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ৭ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ওই সময় বাতাসের আর্দ্রতা ছিল ৯৬ শতাংশ।
শৈত প্রবাহের কারণে চরম দুর্ভোগে পড়েছেন খেটে খাওয়া ও ছিন্নমূল মানুষ। দিন মজুররা কাজ না পেয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন। কিন্তু তাদের খাবার জোটানোর জন্যে কেউ এগিয়ে আসেনি। হিমেল হাওয়ায় বিপর্যস্ত হচ্ছে সব বয়সের মানুষ।
চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. ওয়াহিদ মাহমুদ রবিন বলেন, হাসপাতালে শিশু ওয়ার্ডে ৫২টি শয্যা রয়েছে। গত ২২ জানুয়ারি হতে ২৮ জানুয়ারি বেলা ১২টা পর্যন্ত ১৪৬ জন শিশু শীত জনিত রোগের চিকিৎসা নিয়েছে ও নিচ্ছে। এখানে ওষুধের কোন সমস্যা নেই। এসব শিশু রোগীকে হাসপাতাল থেকে প্রয়োজনীয় ওষুধ সরবরাহ করা হচ্ছে।
আগামী দুদিনে শীতের তীব্রতা আরো বাড়তে পারে বলে চুয়াডাঙ্গা প্রথম শ্রেণির আবহাওয়া পর্যবেক্ষণাগারের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জামিনুর রহমান জানান। এ ছাড়া আগামী ৩১ জানুয়ারি থেকে শৈত্য প্রবাহ থাকবেনা বলে তিনি জানান।

 

 

Lab Scan