স্বাধীনতার স্বপ্ন আজ বুটের পদতলে নিষ্পেষিত : অধ্যাপক নার্গিস বেগম

0

স্টাফ রিপোর্টার ॥ যশোর জেলা বিএনপির আহ্বায়ক অধ্যাপক নার্গিস বেগম বলেছেন, দেশে আজ এমনই একটি ভয়াবহ অবস্থা বিরাজ করছে যেখানে মানুষের প্রাণ খুলে বিজয় উৎসব করার সুযোগ নেই। কিন্ত বীর মুক্তিযোদ্ধারা একটি মানবিক বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখেছিলেন- যেখানে সাম্য ও ন্যায় বিচার নিশ্চিত হবে। মানুষের সকল মৌলিক অধিকার পূর্ণতা পাবে ও মতপ্রকাশের স্বাধীনতা অবারিত থাকবে। কিন্তু অত্যন্ত দুঃখের বিষয় বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সেই স্বপ্ন আজ পর্যুদস্ত।
মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে যশোর নগর মহিলা দল আয়োজিত দোয়া মাহফিল ও দুস্থদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন।  রোববার জেলা বিএনপি কার্যালয়ের সামনে এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়।
অধ্যাপক নার্গিস বেগম তার বক্তব্যের শুরুতে মহান স্বাধীনতার ঘোষক শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানসহ মহান মুক্তিযুদ্ধে আত্মত্যাগকারী সকল বীর যোদ্ধাকে গভীর শ্রদ্ধাভরে স্মরণ ও তাদের রুহের মাগফিরাত কামনা করেন।
এ সময় তিনি আরও বলেন, স্বাধীনতার স্বপ্ন আজ বুটের পদতলে নিষ্পেষিত হচ্ছে। নির্বাচন নির্বাসনে গেছে, সুশাসন নেই,সকল গণতান্ত্রিক অধিকার ও মত প্রকাশের স্বাধীনতা আজ ভূলুণ্ঠিত। সমগ্র জাতি আজ এই অসহনীয় অবস্থা থেকে মুক্তি পেতে চায়। তারা মত প্রকাশের স্বাধীনতা ও সুশাসন কায়েমের লক্ষ্যে নিরপেক্ষ,তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নিবাচন চায়। যে নির্বাচনে জনগণ স্বাধীনভাবে তার মত প্রকাশের সুযোগ পাবে; যাদের দ্বারা রাষ্ট্র পরিচালিত হলে স্বাধীনতা -সার্বভৌমত্ব অক্ষুন্ন থাকবে, দেশবাসীর সকল চাহিদা পূরণ হবে জনগণ তাদেরকে বেছে নেবে। সেই রকম স্বাধীনভাবে মত প্রকাশের লক্ষ্যে নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্যে আমরা আন্দোলন করছি। দেশের সকল গণতান্ত্রিক শক্তি বর্তমান ফ্যাসিস্ট শক্তির বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হয়েছে। লড়াইয়ের ময়দানে জনগণের সমবেত শক্তির জয় হবে ইনশাল্লাহ ।
পরে অধ্যাপক নার্গিস বেগম দুঃস্থদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করেন। এর আগে মহান স্বাধীনতার ঘোষক শহীদ রাষ্ট্রপতি বীর উত্তম জিয়াউর রহমানসহ মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে নিহত সকল শহীদের রুহের মাগফিরাত ও যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাদের সুস্থতা ও দীর্ঘায়ু কামনা করে দোয়া ও মুনাজাত করা হয়।
অনুষ্ঠানে নগর মহিলা দলের সভানেত্রী শামসুন্নাহার পান্নার সভাপতিত্বে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, জেলা বিএনপির সদস্য সিরাজুল ইসলাম, জেলা মহিলা দলের সভানেত্রী রাশিদা রহমান,সিনিয়র সহসভানেত্রী হাসিনা ইউসুফ, জেলা মহিলা দলের সাংগঠনিক সম্পাদিকা নাহিদা আক্তার, নগর মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদিকা সাবিহা সুলতানা, সাংগঠনিক সম্পাদিকা আম্বিয়া মঞ্জুর মুক্তা, সদর উপজেলা মহিলা দলের সিনিয়র সহসভানেত্রী সেলিনা পারভিন শেলী,জেলা মহিলা দলের সহসাংগঠনিক সম্পাদিকা আনোয়ারা পারভিন আনু প্রমুখ।

Lab Scan