স্বাগত ২০২৩

0

মাসুদ রানা বাবু ॥ এসে গেছে নতুন বছর ২০২৩। বিশ্ববাসী ২০২৩ কে স্বাগত জানিয়েছে পরম আগ্রহে। পাওয়া না পাওয়ার নানা কাব্য নিয়ে মহাকালের গর্ভে হারিয়ে গেল ২০২২। পুরাতনের গ্লানি ভুলে পূর্বাকাশে উদিত হয়েছে নতুন সূর্য। পুরানো সকল আনন্দ-বেদনা কালের মহাস্রোতে হয়েছে ইতিহাস। বিদায় ২০২২,স্বাগত ২০২৩। বিদায়ী বছর বাংলাদেশসহ বিশ্ববাসী নানা অঘটনের সাক্ষী হয়েছেন, হারিয়েছেন বরেণ্য ব্যক্তিদের। ক্ষমতাসীনদের বিরোধী দমনের প্রক্রিয়া সমালোচিত হয়েছে দেশে ও বিদেশে। উদ্বোধন হয়েছে স্বপ্নের পদ্মা সেতু ও ঢাকা মেট্রো রেলের। স্থানীয় একাধিক নির্বাচনে অস্বচ্ছতার নজীর একই ভাবে প্রদর্শিত হয়েছে। তবে সবকিছু ছাপিয়ে দ্রব্য মূল্যের লাগামহীন দাম মানুষকে চরম অসহায় করে তুলেছিল । ভোজ্যতেল ও চালের মূল্য রেকর্ড উচ্চতায় পৌঁছেছিল। টিসিবি ও ওএমএসের ডিলারের সামনে নিম্ন ও মধ্যবিত্ত মানুষের সারি দীর্ঘ থেকে দীর্ঘ হয়েছে। নব্বইয়ের দশকের পর ২০২২ সালে প্রথমবারের মতো সরকারি হিসাবেই মূল্যস্ফীতি প্রায় ১০ শতাংশের কাছাকাছি পৌঁছে, বেসরকারি হিসাবে মূল্যস্ফীতি ছিল অনেক বেশি। এ বছর জ্বালানি তেলের দাম ইতিহাসের সর্বোচ্চ পর্যায়ে গিয়ে ঠেকেছে। জনজীবনে নাভিশ্বাস এসেছে, শিল্পকারখানায় কর্মী ছাঁটাই বেড়েছে। ২০২২ ছিল বিদ্যুৎ-জ্বালানি সংকট, ক্ষুধা ও বেকারত্বের বছর, নিম্ন ও মধ্যবিত্তের টানাপোড়েনের বছর। ২০২১-২২ অর্থবছরে দেশের ইতিহাসের সর্বোচ্চ বাণিজ্য ঘাটতি হয় প্রায় ৩৩ বিলিয়ন ডলার। ৮৩ বিলিয়ন ডলারের রেকর্ড আমদানি বাড়ায়, ইতিহাসের সর্বোচ্চ ৫০ বিলিয়ন ডলার রপ্তানিও অর্থনীতিকে স্বস্তি দেয়নি। বরং ডলার বাঁচাতে জ্বালানি আমদানি বন্ধ করলে তেল-গ্যাসের অভাবে কিছু বিদ্যুৎকেন্দ্র বন্ধ করে রাখা হয়। শিল্পের কাঁচামাল, ট্রেডিং পণ্যসহ যাবতীয় আমদানির ঋণপত্র বা এলসি বন্ধের উদ্যোগ নেওয়া হয়। এতেও ডলার রিজার্ভের পতন ঠেকানো যায়নি, সরকারকে নিজস্ব আমদানি এবং বেসরকারি চাহিদায় ক্রমাগতভাবে খোলাবাজারে ডলার ছাড়তে হয়েছে। এ পঞ্জিকাবর্ষে ডলারের বিপরীতে টাকার ইতিহাসের সর্বোচ্চ দরপতন ঘটেছে। এক বছরে সরকারি হিসাবেই ডলার রিজার্ভের ক্ষয় হয়েছে প্রায় ১১ বিলিয়ন ডলার। ডলারের রেট ৮৬ টাকা থেকে বেড়েছে ১০৬ টাকা। বছর শেষেও সরকারি হিসাবে মূল্যস্ফীতি রয়ে গেছে ৮ দশমিক ৮৫ শতাংশ।
গেল বছর দেশের রাজনীতির অঙ্গনের তাপ উত্তাপ ছিল অনেকটা। বিগত বছরে বিএনপি ১০ টি বিভাগীয় গণসমাবেশ করার মধ্য দিয়ে রাজনৈতিক সফলতা দেখায়। গেল ৮ অক্টোবর চট্রগ্রাম থেকে শুরু হওয়া গণ-সমাবেশ নানা নাটকীয়তার মধ্য দিয়ে ১০ ডিসেম্বর ঢাকার গোলাপবাগে যার সমাপ্তি হয়। আবার পুুলিশের গুলিতে দলের শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে দলের বেশ কয়েকজন নেতা কর্মী নিহত হন। গেল ৭ ডিসেম্বর নয়াপল্টনে বিএনপি কার্যালয়ে পুলিশের গুলিতে মকবুল আহমদ নামের এক বিএনপি কর্মী নিহত হন, আবার পুলিশ দলটির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে বোমার নাটক সাজিয়ে তান্ডব লিলা চালায়। দলের সিনিয়র নেতাসহ সাড়ে চার শতাধিক নেতা কর্মীকে পুলিশ আটক করে। আবার ঢাকা বিভাগীয় গণসমাবেশকে কেন্দ্র করে সত্তরোর্ধ্ব বয়সী দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসের মত জাতীয় নেতা নেতৃবৃন্দকে কারাবন্দী করে রাখা হয়েছে। এসকল বিষয়গুলো দেশের রাজনীতিক পরিমন্ডলের পাশাপাশি বিশ্ব পরিমন্ডলে অনেক আলোচনা জন্মদিয়েছে।
গ্যাস-বিদ্যুতের অভাবে বন্ধ হয় কারখানার চাকা, গ্রিড বিপর্যয়ের কারণে ব্ল্যাক আউটের ভয়ংকর অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হয় দেশ। অথচ বছরের প্রথম প্রান্তিকেই দেশ ছুঁয়েছিল শতভাগ বিদ্যুতায়নের মাইলফলক।
যুদ্ধের কারণে বিশ্ব বাজারে উচ্চ মূল্যের প্রভাবে আটা, ভোজ্যতেল, চিনি থেকে শুরু করে চাল, মাছ-মাংস, শাক সবজি সবকিছুর দামই বাড়ে পাল্লা দিয়ে। যুদ্ধের সুযোগে তেল, ডিম ও চিনির সরবরাহ সংকট তৈরি করে দাম তোলা হয় আকাশে।
করোনাভাইরাস সংক্রমণের প্রায় তিন বছরের মধ্যে এ বছর ছিল মহামারীর ধাক্কা সামলে ওঠার সময়। তবে ডেঙ্গুতে মৃত্যু আতঙ্ক ছড়িয়েছে, ঢাকা বাইরেও প্রকোপ বাড়ে মশাবাহিত এ রোগে। পাশাপাশি ডায়রিয়ার প্রবণতাও ছিল।
২৬ সেপ্টেম্বর পঞ্চগড়ের বোদায় করতোয়া নদীতে তীর্থযাত্রীদের এ নৌকা ডুবিতে প্রাণ যায় ৭১ জনের, যা দেশজুড়ে শোকের আবহ তৈরি করে। নৌকাটিতে প্রায় দেড় শতাধিক যাত্রী ছিলেন।
মর্মান্তিক আরেক দুর্ঘটনা ঘটে চট্টগ্রামের সীতাকুন্ডে বিএম কন্টেইনার ডিপোতে। ভয়াবহ এক অগ্নিকান্ড ও বিস্ফোরণে ৫১ জনের প্রাণহানি ঘটে এবং আহত হয় দুই শতাধিক। ৪ জুন রাতের এ আগুন নেভাতে সময় লেগেছে ৮৬ ঘণ্টা।
প্রাকৃতিক দুর্যোগের মধ্যে দিয়েও যেতে হয়েছে দেশকে। জুনের ভয়াবহ বন্যায় দেশের উত্তর পূর্বাঞ্চলে সিলেটে ১৮ বছরের মধ্যে সবচেয়ে ভয়াবহ বন্যা হয়। সম্পদের ক্ষয়ক্ষতির পাশাপাশি এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা পেছাতে হয়।
বন্যার পাশাপাশি এ বছর জুলাই-সেপ্টেম্বরে বজ্রপাতের প্রবণতা বাড়ায় প্রাণহানি, কয়েক দফা তাপপ্রবাহে দেশজুড়ে বিরূপ আবহাওয়া, উপকূলে সিত্রাংয়ের মত ঘূর্ণিঝড় আঘাত হানে। নারায়ণগঞ্জে শীতলক্ষ্যা নদীতে ২০ মার্চে সিটি গ্রুপের মালিকানাধীন একটি মালবাহী জাহাজের ধাক্কায় লঞ্চডুবির পর অন্তত ছয়জনের প্রাণহানি ঘটে। অন্যান্য বছরের মত এবারও সড়কে প্রাণহানির ঘটনা ছিল বেশ। বিশেষ করে মোটরসাইকেলে দুর্ঘটনার খবর এসেছে একের পর এক। বেসরকারি এক সংস্থার জরিপ অনুযায়ী, জুন মাসেই দুই চাকার এ বাহনে ২০৪ আরোহীর প্রাণ যায় সড়কে। আগস্টে উত্তরায় গার্ডারের চাপায় ৫ জনের মৃত্যুর ঘটনাও আলোচনা-সমালোচনার জন্ম দেয়। ১৫ আগস্ট ঢাকার উত্তরায় বাস র‌্যাপিড ট্রানজিট (বিআরটি) প্রকল্পের ক্রেইন নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে কংক্রিটের গার্ডার আছড়ে পড়ে থেঁতলে যায় রাস্তায় থাকা একটি গাড়ি, ভেতরেই প্রাণ গেছে এক পরিবারের পাঁচজনের।
এর আগে ২৯ জুলাই চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে লেভেল ক্রসিংয়ে উঠে পড়া পর্যটকবাহী মাইক্রোবাসে ট্রেনের ধাক্কায় অন্তত ১১ জনের মৃত্যু হয়। অন্য দুর্ঘটনার মধ্যে ১৫ অগাস্টে পুরান ঢাকার চকবাজারে একটি প্লাস্টিক কারখানায় আগুনে ঘুমের মধ্যে ৬ হোটেল কর্মীর মৃত্যু হয়। ঢাকার শাহজাহানপুরে সড়কে ভিড়ের মধ্যে মোটরসাইকেলে করে এসে সবার সামনে গুলি করে হত্যা করা হয় মতিঝিল থানা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম টিপুকে। ২৪ মার্চ রাত ১০টার দিকে এলোপাথাড়ি গুলিতে টিপুর গাড়ির পাশে রিকশায় থাকা কলেজছাত্রী সামিয়া আফরান প্রীতি নিহত হন। গুলিবিদ্ধ হন গাড়িচালক মুন্নাও।
বছর শেষে এসে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ফারদিন নূর পরশের রহস্যময় মৃত্যু বেশ নাড়া দেয়। ৪ নভেম্বর দুপুরে কোনাপাড়ার বাসা থেকে বেরিয়েছিলেন ফারদিন; বলে গিয়েছিলেন, পরদিন তার পরীক্ষা রয়েছে বলে রাতে বুয়েটের হলেই থাকবেন। এরপর আর বাসায় ফেরেননি, পরীক্ষাও দেননি। তিন দিন নিখোঁজ খাকার পর ৭ নভেম্বর নারায়ণগঞ্জের গোদনাইলে শীতলক্ষ্যা নদীর পাড়ে তার লাশ পাওয়া যায়। রাজনীতির ডামাডোলের মধ্যে ২৪ ডিসেম্বর আওয়ামী লীগের কাউন্সিলে শেখ হাসিনাকে সভাপতি ও ওবায়দুল কাদেরকে সাধারণ সম্পাদক পুনর্র্নিবাচিত করেন দলের কাউন্সিলররা। দুই দলের রাজপথে আন্দোলনের পাল্টাপাল্টি ‘খেলা’ চললেও ঘর গোছাতেই বছর পার হয়েছে জাতীয় পার্টির।  এসবের মধ্যে কাজী হাবিবুল আউয়াল নেতৃত্বাধীন নির্বাচন কমিশন গঠন করা হয়। এ কমিশনের অধীনেই ২০২৩ সালের ডিসেম্বর থেকে ২০২৪ সালের জানুয়ারির মধ্যে দ্বাদশ সংসদ নির্বাচন হবে। সর্বোচ্চ দেড়শ’ আসনে ইভিএমে ভোট করার সিদ্ধান্ত নিয়ে কাজও শুরু করে ইসি। এদিকে এ কমিশনকে প্রত্যাখান করে ও তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবিতে বিএনপি নির্বাচন বর্জন অব্যাহত রাখে। ইভিএম নিয়ে আলোচনা-সমালোচনার মধ্যে ভোটে স্বচ্ছতা আনতে সব ধরনের নির্বাচনে ইভিএম এবং সিটি, পৌর সাধারণ নির্বাচন ও সংসদীয় আসনের উপ নির্বাচনে সিসি ক্যামেরা ব্যবহারের সিদ্ধান্ত নেয় ইসি। এমন পরিস্থিতিতে ১২ অক্টোবর গাইবান্ধা ৫ উপ নির্বাচনে ব্যাপক অনিয়ম ধরা পড়ায় পুরো আসনের ভোট বন্ধ করে দেয় কমিশন। ইসির ইতিহাসে নজিরবিহীন এ সিদ্ধান্তে বেশ প্রতিক্রিয়াও হয়।  বিজ্ঞান পড়াতে গিয়ে শিক্ষক হেনস্তা : ক্লাসে পড়ানোর সময় ধর্ম নিয়ে এক প্রশ্নের সূত্র ধরে ২২ মার্চ মুন্সিগঞ্জের সদর উপজেলার পঞ্চসার ইউনিয়নের বিনোদপুর রামকুমার উচ্চ বিদ্যালয়ের বিজ্ঞান ও গণিতের শিক্ষক হৃদয় চন্দ্র মন্ডলকে কথিত ধর্ম অবমাননার অভিযোগে বিক্ষোভের মুখে আটক করা হয়। দেশজুড়ে প্রতিক্রিয়ার মধ্যে ১০ এপ্রিলে জামিনের পর কারাগার থেকে মুক্তি পান তিনি।
আরেক ঘটনায় ধর্ম অবমাননার অভিযোগ তুলে নড়াইলের মির্জাপুর ইউনাইটেড ডিগ্রি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ স্বপন কুমার বিশ্বাসকে হেনস্তার ঘটনা ঘটে ১৭ জুন। কলেজের ছাত্র ও স্থানীয়রা গলায় জুতার মালা পরিয়ে দেয় এ শিক্ষককে। পরে গ্রেফতার করা হয় স্বপনকে। বিজয়ের মাসে ভারতের বিপক্ষে টাইগারদের ঐতিহাসিক সিরিজ জয়,সাবিনাদের সাফ জয়: স্বাগতিক নেপালকে ৩-১ গোলে হারিয়ে প্রথমবারের মত দক্ষিণ এশিয়ার ফুটবলের শিরোপা জেতে বাংলাদেশের মেয়েরা। কাঠমান্ডু থেকে ফেরার পর ছাদখোলা বাসে তাদের বর্ণাঢ্য সংবর্ধনা দেওয়া হয়।
গেল বছরে শুরুতে ১১ জানুয়ারি বিএনপি চেয়ারপার্সন সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার একান্ত সহকারী হারিস চৌধুরী না ফেরার দেশে পাড়ি জমান। এছাড়া দলের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান ভাষা সৈনিক, বীরমুক্তিযোদ্ধা সাবেক উপপ্রধান মন্ত্রী বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শাহ মোয়াজ্জেম হোসেন, চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা সাবেক হুইপ বীরমুক্তিযোদ্ধ মশিউর রহমান না ফেরার দেশে পাড়ি জমান। এছাড়া বিদায়ী বছরের বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য সংসদ উপনেতা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী,জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার অ্যাড. ফজলে রাব্বি,সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত,সাবেক রাষ্ট্রপতি ও প্রধান বিচারপতি সাহাবুদ্দিন আহমেদ,সাবেক নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার,তত্ত্ববধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা আকবর আলী খান, বিশিষ্ঠ সাংস্কৃতিক ব্যাক্তিত্ব গাজী মাজহারুল আনোয়ার, সাংবাদিক ও কলাম লেখক আব্দুল গফ্ফার চৌধুরী, সাংবাদিক পীর হাবিবুর রহমান,তোয়াব খান,রণেশ মিত্র, আবৃত্তি শিল্পী হাসান আরিফ, কথাসাহিত্যিক দিলারা হাশেম,অভিনয় শিল্পী শর্মিলা আহমেদ,শিশু সাহিত্যিক আলী ইমাম, সংগীত ব্যাক্তিত্ব খুরশিদ আলম খানের মত অসংখ্য বরেণ্যে ব্যাক্তিদের। যশোর সদর উপজেলার বিএনপির সাবেক সভাপতি নুর-উন-নবী, বিএনপি নেতা সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুস সাত্তার মারা যান। জেলা যুবদলের সাবেক সিনিয়র সহ-সভাপতি বদিউজ্জামান ধনি নৃশংস হত্যার শিকার হন।
বিদায়ী বছরের বিশ্ব পরিমন্ডেলেও নানা ঘটনা আলোচনার উত্তাপ ছড়িয়েছে। বছরের শুরুতে রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ শুরু হয়। এই যুদ্ধ বিশ্ব ব্যাপী খাদ্য শস্যের ওপর প্রভাব ফেলে। এছাড়া শ্রীলংকায় দুর্নীতি ও অব্যবস্থাপনার ফলে সৃষ্ট গণ জোয়ারে প্রেসিডেন্ট গোটাবায়া রাজাপক্ষে তার ভাই দেশটির প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দ রাজাপক্ষে বিক্ষোভে মুখে দেশ ত্যাগ করেন। রানী এলিজাবেথের মৃত্যুর পর বিট্রিশ রাজ সিংহাসনে আসীন হন প্রিন্স চার্লস। এছাড়া গেল বছল ব্রিটেনে তিন বার প্রধানমন্ত্রী পদে রদবদলের ঘটনা ঘটে। জাপানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে রাজনৈতিক কর্মসূচিতে গুলিতে নিহত হন। কোকিল কন্ঠি ভারতের কিংবদন্তি শিল্পী লতা মঙ্গেশকর, সঙ্গীত শিল্পী সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায়,বাপ্পি লাহিড়ী পরোপারে পাড়ি জমান।

 

 

 

Lab Scan