স্বর্ণে আস্থা রাখার পরামর্শ গোল্ডম্যানের

লোকসমাজ ডেস্ক।। স্বর্ণ কখনো দীর্ঘমেয়াদি সরকারি বন্ডের বিকল্প হয়ে উঠতে পারবে না। কিন্তু ভূরাজনৈতিক অস্থিরতার জেরে যে অভ্যন্তরীণ রাজনীতি ও আন্তর্জাতিক ব্যবসায় অনিশ্চয়তার পরিবেশ তৈরি হয়েছে, তাতে সবচেয়ে কম ঝুঁকির বিনিয়োগের সর্বোত্তম বিকল্প হতে পারে স্বর্ণ। গোল্ডম্যান স্যাকস গ্রুপ ইনকরপোরেশনের বিশ্লেষকরা বলছেন, বিনিয়োগকারীদের দীর্ঘমেয়াদি বন্ডে বৈচিত্র্য আনতে স্বর্ণে আরো বেশি নজর দেয়া উচিত। তবে এ মূল্যবান ধাতুটির ‘ভীতি থেকে চাহিদা’ বৃদ্ধির প্রবণতার কথাও উল্লেখ করতে ভোলেননি বিশ্লেষকরা। খবর ব্লুমবার্গ।
সাবিন চেলসসহ গোল্ডম্যানের কয়েকজন বিশ্লেষক গত শুক্রবার এক নোটে বলেন, পোর্টফোলিওতে স্বর্ণ কখনো সরকারি বন্ডের বিকল্প হবে না। কিন্তু সাধারণ বন্ডের একটি অংশ স্বর্ণের জন্য বরাদ্দ রাখার ভবিষ্যৎ এখন এযাবত্কালের মধ্যে সবচেয়ে শক্তিশালী।
বিশ্লেষকরা বলেন, স্বর্ণের মূল্যবৃদ্ধি ও পতন চক্র এবার দীর্ঘায়িত হবে বলে মনে হচ্ছে। ফলে এ ধাতুর মূল্যবৃদ্ধি অব্যাহত থাকার সম্ভাবনাই বেশি। তাছাড়া রাজনৈতিক অনিশ্চয়তা স্বর্ণে বিনিয়োগ চাহিদাকে ত্বরান্বিত করছে। কারণ এটি বিনিয়োগকারীদের কাছে প্রতিরক্ষামূলক সম্পদ বলে বিবেচিত হয়।
এদিকে সেপ্টেম্বরে স্বর্ণের দাম গত ছয় বছরের মধ্যে সর্বোচ্চে পৌঁছে যায়। মার্কিন কেন্দ্রীয় ব্যাংক ফেডারেল রিজার্ভ সুদহার কমানো এবং ঋণাত্মক ইল্ডের ঋণের পরিমাণ এক লাফে রেকর্ড ১৭ ট্রিলিয়ন ডলারে দাঁড়িয়ে যাওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে এ পরিস্থিতি আরো গতি পেয়েছে। এ কারণেই বিনিয়োগকারীদের কাছে সুদহীন নিরাপদ বিনিয়োগ হিসেবে স্বর্ণের আবেদন বেড়েছে।
এছাড়া হেজ ফান্ড এবং অন্যান্য বড় ফাটকা বিনিয়োগকারীরাও স্বর্ণেই বাজি ধরছেন। ৩ ডিসেম্বর সমাপ্ত সপ্তাহে এ ধাতুতে তাদের বিনিয়োগ ৮ দশমিক ৯ শতাংশ বেড়েছে। গত শুক্রবার প্রকাশিত সরকারি তথ্যে দেখা যাচ্ছে, সেপ্টেম্বরের শেষ নাগাদ থেকে এ পর্যন্ত এ ধরনের বিনিয়োগ বৃদ্ধির এটিই সর্বাধিক হার।
অন্যদিকে শুক্রবার স্পট মার্কেটে স্বর্ণের দাম ইদানীংকালের সর্বোচ্চ দাম থেকে ৬ শতাংশেরও বেশি কমে ১ হাজার ৪৬০ দশমিক ১৭ ডলারে থেমেছে। গোল্ডম্যান স্যাকসের বিশ্লেষকরা বলছেন, স্বর্ণের বাজারের এ সংশোধন আরো চলতে থাকবে এবং বাজার মোটামুটি চাঙ্গাই থাকবে বলা যায়। আগামী বছরের মধ্যে স্বর্ণের দাম ১ হাজার ৬০০ ডলারে পৌঁছতে পারে বলে এর আগে যে পূর্বাভাস দেয়া হয়েছিল শুক্রবার সে অবস্থানের পুনরাবৃত্তি করেছেন ব্যাংকটির বিশ্লেষকরা।

ভাগ