স্ত্রীসহ দুই জনের বিরুদ্ধে হত্যা চেষ্টার মামলা শিক্ষকের

0

স্টাফ রিপোর্টার ॥ যশোর ক্যান্টনমেন্ট হাইস্কুলের সহকারী শিক্ষক আমিনুল ইসলামকে বিষ খাইয়ে হত্যার চেষ্টা চালানোর অভিযোগ উঠেছে তার স্ত্রী সালেহা আক্তারের বিরুদ্ধে। ঘটনার ৪ দিন পর মঙ্গলবার সালেহা আক্তার ও তার কথিত প্রেমিক সামিউল ইসলাম জুয়েলের বিরুদ্ধে কোতয়ালি থানায় মামলা করেছেন ওই শিক্ষক।
অভিযুক্তরা হলেন, ব্রাম্মণবাড়িয়ার নাসিরনগর উপজেলার রামপুর গ্রামের এম এ আবু তাহেরের মেয়ে সালেহা আক্তার (২৫) ও যশোর সদর উপজেলার নওদাগ্রাম কেরামতপাড়ার বাসিন্দা সামিউল ইসলাম জুয়েল (২৩)।
পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জ উপজেলার বাজিতা গ্রামের আব্দুল হামিদ শিকদারের ছেলে বর্তমানে যশোর সদর উপজেলার নওদাগ্রামের বাসিন্দা আমিনুল ইসলামের অভিযোগ, তিনি যশোর ক্যান্টনমেন্ট হাইস্কুলের সহকারী শিক্ষক। অভিযুক্ত সালেহা আক্তার তার স্ত্রী। তাদের ১টি মেয়ে ও ছেলে সন্তান রয়েছে। তার স্ত্রী সালেহা আক্তার অপর অভিযুক্ত সামিউল ইসলাম জুয়েলের সাথে পরকীয়া সম্পর্ক গড়ে তুলেছেন। দীর্ঘদিন ধরে তাদের মধ্যে এই পরকীয়া সম্পর্ক চলে আসছে। বিষয়টি আমিনুল ইসলাম টের পাওয়ার পর তিনি স্ত্রী সালেহা আক্তারকে সামিউল ইসলাম জুয়েলের সাথে সম্পর্ক না রাখার জন্যে অনুরোধ করেন। এ কারণে সালেহা আক্তার ও সামিউল ইসলাম জুয়েল তাকে হত্যার পরিকল্পনা করেন। গত ১৬ জুন সন্ধ্যা ৭টার দিকে হত্যার উদ্দেশ্যে কীটনাশক মিশ্রিত আমের জুস আমিনুল ইসলামকে খেতে দেন সালেহা আক্তার। এই কাজের জন্যে সালেহা আক্তারকে ইন্ধন দেন সামিউল ইসলাম জুয়েল। কীটনাশক মিশ্রিত আমের জুস খাওয়ার পর আমিনুল ইসলাম অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরদিন সকাল সাড়ে ৯টার দিকে অসুস্থ আমিনুল ইসলামকে তার মেয়ে তাসনিম (১২) ইজিবাইকে করে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়। হাসপাতালে চিকিৎসা গ্রহণের পর কিছুটা সুস্থ হওয়ায় তিনি মামলা করেছেন বলে এজাহারে উল্লেখ করেছেন আমিনুল ইসলাম।

 

 

 

 

 

 

 

Lab Scan