সুপ্রিম কোর্ট বার সভাপতির পদ নিয়ে আইনজীবীদের মুখোমুখি অবস্থান, উত্তপ্ত কোর্ট অঙ্গন

0

লোকসমাজ ডেস্ক॥ সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি পদ নিয়ে বিএনপি ও আওয়ামী লীগ সমর্থক আইনজীবীরা বুধবার দ্বিতীয় দিনের মতো সুপ্রিম কোর্ট বার ভবনে একই স্থানে মুখোমুখি অবস্থান নিয়ে পাল্টাপাল্টি মিছিল-স্লোগান দিয়েছে। দুই পক্ষের পাল্টাপাল্টি স্লোগানে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে সুপ্রিম কোর্ট অঙ্গন। বুধবার দুপুর ১টা থেকে সুপ্রিম কোর্ট বারের সভাপতির কক্ষের সামনে বিএনপি ও সরকার সমর্থক কয়েক শ’ আইনজীবী অবস্থান নিয়ে স্লোগান দিতে থাকেন। বিএনপি সমর্থক আইনজীবীরা ভুয়া ভুয়া, ভোট চোর, ভোট চোর বলে স্লোগান দেন। আর আওয়ামী লীগ সমর্থকরা জয় বাংলা, বিএনপি জামায়াত রাজাকার বলে স্লোগান দেন। উভয়পক্ষের সামনাসামনি স্লোগানে সুপ্রিমকোর্ট এলাকা উত্তপ্ত হয়ে ওঠে।
এ সময় সরকার সমর্থক আইনজীবীরা সুপ্রিম কোর্ট বারের সভাপতি কক্ষে এবং কক্ষের সামনে অবস্থান নিয়ে স্লোগান দেন। আর বিএনপি সমর্থক আইনজীবীরা আব্দুল জব্বার ভূঁইয়া, গাজী কামরুল ইসলাম সজল, সাইফুর রহমানের নেতৃত্বে সুপ্রিমকোর্ট বার ভবনের সভাপতির কক্ষের সামনে অবস্থান নিয়ে পাল্টা স্লোগান দিতে থাকেন। উভয় পক্ষে কয়েক শ’ আইনজীবী অংশ নিয়ে মুখোমুখি স্লোগান দিতে থাকেন। আইনজীবীরা স্বঘোষিত সভাপতি মানি না, বলে স্লোগানে দেন। আওয়ামী লীগ সমর্থক আইনজীবীরাও পাল্টা দেন। পাল্টাপাল্টি অবস্থান ও তুমুল স্লোগানে উত্তাল হয়ে ওঠে সুপ্রিম কোর্ট অঙ্গন। এ বিষয়ে অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন মঙ্গলবার বলেছিলেন , সভাপতির পদ নিয়ে নোংরামি হচ্ছে। এ ধরনের রাজনীতি আমি চরমভাবে ঘৃণা করি। আমি সভাপতি থেকেই বারের সব উন্নয়নমূলক কাজ করেছি। তিনি বলেন, এক মাস পর সভাপতির কক্ষে গিয়েছিলাম। তবে তিনি সভাপতির চেয়ারে বসেননি বলেও জানান।
এ বিষয়ে জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম সুপ্রিম কোর্ট ইউনিটের সাধারণ সম্পাদক গাজী কামরুল ইসলাম সজল বলেন, সভাপতি পদ দখলের অপচেষ্টা আইনজীবীরা মেনে নেবে না। তিনি বলেন, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতির চেয়ার জবর দখল করে অনির্বাচিত কাউকে আমরা বসতে দেব না। আমার আন্দোলন চালিয়ে যব। উল্লেখ্য, গত ২৬ এপ্রিল সমিতির গঠনতন্ত্রের ১৬ অনুচ্ছেদ উল্লেখ করে সভাপতির শূন্যপদ পূরণের করণীয় নির্ধারণ করতে সমিতির সম্পাদক ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল বিশেষ সাধারণ সভা আহ্বান করেন। গত ৪ মে দুপুরে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির শহীদ শফিউর রহমান মিলনায়তনে সহ-সভাপতি শফিক উল্যার সভাপতিত্বে অ্যাটর্নি জেনারেল ও সাবেক সভাপতি এ এম আমিন উদ্দিনকে সভাপতি নির্বাচিত করার ঘোষণা দেন আওয়ামী লীগ সমর্থক আইনজীবীরা। তবে সভা শুরুর পর এতে সভাপতিত্ব কে করবেন তা নিয়ে হইচই, হট্টগোল ও বাগবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন কার্যনির্বাহী কমিটিভুক্ত আওয়ামী লীগ ও বিএনপি সমর্থক পক্ষের আইনজীবীরা। এরপর ওই সভা মুলতবি করেন সম্পাদক ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল।

Lab Scan