সুইডেনে পারমাণবিক নিরস্ত্রীকরণ আলোচনা ব্যর্থতার দাবি উত্তর কোরিয়ার অস্বীকার যুক্তরাষ্ট্রের

সুইডেনে যুক্তরাষ্ট্র ও উত্তর কোরিয়ার প্রতিনিধিদের মধ্যে ওয়ার্কিং লেবেল আলোচনা কোনো ধরনের সিদ্ধান্ত ছাড়াই শেষ হয়েছে। উত্তর কোরিয়ার শীর্ষ সমঝোতাকারী শনিবার রাতে এ খবর নিশ্চিত করেন। উভয় পক্ষের মধ্যে কয়েক মাসের অচলাবস্থা কাটাতে গুরুত্বপূর্ণ এ আলোচনা ব্যর্থ হয়েছে বলে দাবি পিয়ংইয়ংয়ের। অবশ্য দুই পক্ষের মধ্যে বেশ ভালো আলোচনা হয়েছে বলে দাবি ওয়াশিংটনের। খবর রয়টার্স ও বিবিসি।
গত জুনে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উনের সঙ্গে বৈঠকের পর এই প্রথম আলোচনায় বসেছিলেন দুই দেশের কূটনীতিকরা। গত ফেব্রুয়ারিতে ভিয়েতনাম সম্মেলন ব্যর্থ হওয়ার পর আলোচনা পুনরায় শুরু করতে চাচ্ছিল ওয়াশিংটন ও পিয়ংইয়ং।
পুরো দিন আলোচনা শেষে ব্যর্থতার জন্য যুক্তরাষ্ট্রের অনমনীয় মনোভাবকে দায়ী করেন উত্তর কোরিয়ার প্রধান সমঝোতাকারী কিম মিয়ং গিল। তিনি জানান, অন্যপক্ষ তাদের পুরনো দৃষ্টিভঙ্গি ও মনোভাব ত্যাগ করতে প্রস্তুত নয়। সুইডেন দূতাবাসের বাইরে এক সংবাদ সম্মেলনে গিল বলেন, আলোচনা প্রক্রিয়া আমাদের প্রত্যাশা পূরণ করেনি এবং চূড়ান্ত পর্যায়ে তা ভেস্তে গেছে।
উত্তর কোরিয়া পরমাণু আলোচনা ব্যর্থ হয়েছে দাবি করলেও যুক্তরাষ্ট্র তা অস্বীকার করেছে। ওয়াশিংটনের দাবি, স্টকহোমে দুই পক্ষের মধ্যে সাড়ে ৮ ঘণ্টার বেশ ‘ভালো আলোচনা’ হয়েছে। সপ্তাহ দুয়েকের মধ্যে সুইডেন দুই পক্ষের সঙ্গে আরো আলোচনার উদ্যোগ নেবে বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেছে যুক্তরাষ্ট্র।
মার্কিন প্রতিনিধি দলের মুখপাত্র মরগান ওর্তাগাস এক বিবৃতিতে বলেন, যুক্তরাষ্ট্র সৃজনশীল অনেক প্রস্তাব এনেছে এবং ডিপিআরকে প্রতিনিধি দলের সঙ্গে ফলপ্রসূ আলোচনা চালিয়েছে। কোরীয় উপদ্বীপে যুক্তরাষ্ট্র ও ডিপিআরকের মধ্যে ৭০ বছরের যুদ্ধ ও বিরোধ এক শনিবারে শেষ হয়ে যাবে না। উল্লেখ্য, ডেমোক্রেটিক পিপলস রিপাবলিক অব কোরিয়া (ডিপিআরকে) হিসেবে পরিচিত উত্তর কোরিয়া।
সম্প্রতি সাবমেরিন থেকে সফলভাবে ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার দাবি করেছে উত্তর কোরিয়া। দেশটির কর্মকর্তারা জানান, সমুদ্রসীমাকে বাইরের হুমকি থেকে সুরক্ষা ও আত্মরক্ষার সক্ষমতা জানান দিতে এ পরীক্ষা চালিয়েছে তারা। ৩০ সেপ্টেম্বর যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ আলোচনার ব্যাপারে ঘোষণা দেয়ার পরই এ পরীক্ষা চালায় তারা।
ফেব্রুয়ারিতে হ্যানয়ে ট্রাম্প-কিম বৈঠকে যুক্তরাষ্ট্র উত্তর কোরিয়াকে সব ধরনের পারমাণবিক অস্ত্র ত্যাগের কথা বললে পিয়ংইয়ং মার্কিন নেতৃত্বাধীন সব আন্তর্জাতিক অবরোধ তুলে নেয়ার দাবি করে। দুই পক্ষ পারস্পরিক সম্মতিতে পৌঁছতে ব্যর্থ হলে ভেস্তে যায় আলোচনা। হ্যানয় বৈঠক ব্যর্থ হওয়ার পর গত ৩০ জুন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে এক বৈঠকে ওয়ার্কিং লেভেলে আলোচনা পুনরায় শুরুর বিষয়ে সম্মত হন উত্তর কোরীয় নেতা কিম জং-উন।

ভাগ