সাবেক স্ত্রীকে ছুরিকাঘাত করায় গণপিটুনি

0

স্টাফ রিপোর্টার, অভয়নগর (যশোর)॥ যশোরের নওয়াপাড়া শিল্পশহরে সাবেক স্বামীর চাকুর পোচে গুরুতর আহত হয়েছেন বিথী খাতুন (২৪) নামের এক নারী। আশংকাজনক অবস্থায় তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অপরদিকে এ ঘটনায় জনতা হাবিবুর রহমান হবিকে (৩৫) আটক করে গণপিটুনি দিয়েছে। সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ওই সময় একটি প্রাইভেট কার এসে বিথী খাতুনের কর্মস্থল নওয়াপাড়া শহরের স্বপ্ন শো-রুমের কাছে এসে দাঁড়ায়। শো-রুমের কর্মচারী বিথী খাতুন শো-রুমে প্রবেশের পথে দাঁড়িয়ে থাকা অবস্থায় দুইজনের মধ্যে কথাকাটাকাটির এক পর্যায়ে হাবিবুর রহমান হবি সাবেক স্ত্রী বিথীকে হাতে এবং পেটের বাম পাশে চাকুর পোচ দেন। এতে তিনি গুরুতর আহত হন। শো-রুমের কর্মচারীরা তাকে উদ্ধার করে অভয়নগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তির পর আশংকাজনক হওয়ায় তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। খবর ছড়িয়ে পড়লে জনতা প্রাইভেট কার ধাওয়া করে নূরবাগ এলাকা থেকে সাবেক স্বামী হাবিবুর রহমান হবিকে আটক করে বেদম গণপিটুনি দেয়। এ সময় প্রাইভেট কারের চালকসহ দুইজন যুবক পালিয়ে যান। খবর পেয়ে অভয়নগর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে গুরুতর আহত অবস্থায় হবিকে উদ্ধার করে অভয়নগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তির পর অবস্থার অবনতি হলে তাকেও খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করা হয়। পুলিশ জানায়, উপজেলার কোটা গ্রামের লুৎফর রহমানের মেয়ে বিথী খাতুনের সাথে ময়মনসিংহ জেলার ভালুকা উপজেলার ভানডাবো গ্রামের মৃত ছবির উদ্দিনের ছেলে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী ৬১ বেঙ্গল রেজিমেন্ট সিলেট থেকে ২০২০ সালে চাকরিচ্যুত হাবিবুর রহমান হবির বিয়ে হয়। কিছুদিন ঘর সংসার করার পর তাদের মধ্যে ছাড়াছাড়ি হয়ে যায়।
বিথী খাতুনের চাচা মো. জাকির হোসেন জানান, তার ভাইজিকে মেরে ফেলার উদ্দেশ্যে তার পেটে চাকু মেরেছেন পাষন্ড হবি।
হাপাতালে থাকা অবস্থায় হাবিবুর রহমান হবি জানান, আমার ২০ লাখ টাকার ক্ষতি করেছে বিথী। আমি চাকরিচ্যুত হয়েছি ওর কারণে। আমার সাথে সংসার না করার জন্যে তাকে চাকু মেরেছি।
অভয়নগর থানার ওসি এবিএম মেহেদী মাসুদ জানান, খবর পেয়ে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে।

Lab Scan