সাতক্ষীরায় সম্পত্তির বিরোধ নিয়ে ভাইয়ের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন

0

সাতক্ষীরা সংবাদদাতা ॥ সাতক্ষীরায় সম্পত্তির বিরোধ নিয়ে ভিত্তিহীন সংবাদ পরিবেশনের প্রতিবাদে ভাইয়ের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন, সদর উপজেলার বেতলা মাদ্রাসাপাড়া গ্রামের মৃত নিজাম উদ্দীন পশারীর পুত্র গোলাম রাব্বানী।
তিনি তার লিখিত বক্তব্যে বলেন, মৃজাপুর বাঁশঘাটা মৌজায় কবলাকৃত সম্পত্তি আমরা ৪ ভাই আগরদাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতিতে আপোষনামার মাধ্যমে ভাগ বন্টন করে সরকারি সার্ভেয়ার দিয়ে সীমানা নির্ধারণ করে স্ব স্ব সম্পত্তি ভোগদখল করে আসছি। এমনকী ম্যাপ তৈরি করে আপোষনামা তৈরি করা হয়। আপোষ বন্টন নামায় প্রত্যেক ভাইয়েরা স্বাক্ষরও করেন। কিন্তু আমার সহোদর ভাই আইয়ুব আলী তার ভাগের সম্পত্তি ছাড়াও আমার ভাগের সম্পত্তি অবৈধভাবে দখলের ষড়যন্ত্র শুরু করেন। এক পর্যায়ে গত ৪ নভেম্বর সকাল ৮টায় উল্লিখিত আয়ুব আলী, আবুল বাশার, আইয়ুব আলীর পুত্র হাবিবুল্লাহ, সাইফুল্লাহ, মোজাহিদ, ইব্রাহিম, জাহিদসহ ১০/১২ জন ব্যক্তি আমার সম্পত্তিতে প্রবেশ করে সরিষা ও লাল শাক নষ্ট করে এবং সীমানা পিলার উপড়ায় ফেলেন। আমি বাধা দিতে গেলে আমাকে মারধর করেন। আমি পরবর্তীতে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা গ্রহণ করি। এছাড়া আইয়ুব আলী অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ এবং খুন জখমসহ বিভিন্ন হুমকি ধামকি প্রদর্শন করেন। এঘটনায় সাতক্ষীরা সদর থানায় একটি মামলা চলমান রয়েছে। এছাড়া আইয়ুব আলীর স্ত্রী আছিয়া খাতুনসহ কয়েকজন নারী আমার সম্পত্তি ক্ষতি করে যাচ্ছেন। অথচ এঘটনায় ভিন্নখাতে প্রবাহিত করতে আইয়ুব আলী সাংবাদিকদের মিথ্যা তথ্য সরবরাহ করে একটি ভিত্তিহীন সংবাদ পরিবেশন করেন। সংবাদে সরকারি চাকরিতে কর্মরত আমার একমাত্র পুত্র শাহীদ হাসানকে (বান্না) জড়িয়ে অবান্তর বক্তব্য উপস্থাপন করেন। কিন্তু আইয়ুব আলী যে সময় উল্লেখ করেছেন সে সময় আমার পুত্র তার কর্মস্থলে ছিলো। এছাড়া আমার বিরুদ্ধে কোন মামলা না থাকলেও একাধিক মামলার আসামি হিসেবে উপস্থাপন করা হয়েছে। যা সম্পূর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। প্রকৃতপক্ষে তার সন্তানদের বিরুদ্ধে নারী কেলেঙ্কারিসহ একাধিক মামলা রয়েছে। গত ৬ নভেম্বর জমিতে গেলে আইয়ুব আলী আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যে বাঁশের লাঠি নিয়ে প্রকাশ্যে তাড়া করেন। ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে আমার পুত্রের চাকরি নষ্টের উদ্দেশ্যে বিভ্রান্তিকর তথ্য উপস্থাপন করে সাংবাদিকদের কাছে মিথ্যা তথ্য উপস্থাপন করেন। এতে তার সম্মানের চরমহানি হয়েছে। সংবাদ সম্মেলন থেকে তিনি এ সময় তার কবলা সম্পত্তি রক্ষা এবং সহোদর ভাই আইয়ুব আলীসহ তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের দাবিতে সাতক্ষীরার পুলিশ সুপারসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

Lab Scan