সাংবাদিকদের নিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর মন্তব্যে বিএফইউজের নিন্দা

0

 

সাংবাদিকদের নিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেনের বক্তব্য ঔদ্ধত্যপূর্ণ ও উদ্ভট আখ্যা দিয়ে এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন (বিএফইউজে) ও ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন (ডিইউজে) নেতৃবৃন্দ।
রবিবার বিএফইউজে সভাপতি এম আবদুল্লাহ ও মহাসচিব নূরুল আমিন রোকন এবং ডিইউজে সভাপতি কাদের গনি চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ শহীদুল ইসলাম এক বিবৃতিতে এ কথা বলেন।
বিবৃতিতে তারা বলেন, পররাষ্ট্রমন্ত্রীর এ ধরনের ঢালাও মন্তব্য কুরুচিপূর্ণ, মানহানিকর ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। সাংবাদিক সমাজ ঘৃণাভরে তা প্রত্যাখ্যান করেছে।
এছাড়া তারা আরো জানান, পররাষ্ট্রমন্ত্রীর এমন কটূক্তি, কুরুচিপূর্ণ মনোভাব, অনৈতিক ও অনধিকার চর্চামূলক বক্তব্য অবিলম্বে প্রত্যাহার করতে হবে ও সাংবাদিকদের কাছে নিঃশর্তে ক্ষমা চাইতে হবে। অন্যথায় সাংবাদিক সমাজ তাকে বর্জনসহ কঠোর পদক্ষেপ নেবে।
উল্লেখ্য, শনিবার গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী অভিযোগ করে বলেন, ২৬ অক্টোবর জাতীয় প্রেসক্লাবে এক অনুষ্ঠানে তার দেয়া বক্তব্য ভুলভাবে উদ্ধৃত করে ভিত্তিহীন সংবাদ প্রচার করেছে কিছু গণমাধ্যম। পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ভাষ্যানুযায়ী তিনি যে বক্তব্য দিয়েছেন তার সাথে মিডিয়ার হেডলাইনের কোনো সম্পর্ক নেই। হেডলাইনগুলো বলেছে, আমেরিকা যুদ্ধবাজ, অমুক-তমুক, এসব কথা তার মুখে আসেনি। কিন্তু ১৭টি গণমাধ্যম এ ধরনের মিথ্যা, বানোয়াট ও কাল্পনিক তথ্য দিয়েছে। এ কারণে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ‘আমাদের দেশে যারা সাংবাদিকতা করেন, তাদের মধ্যে দুর্বলতা আছে এবং তাদের পরিপক্বতা দরকার’ বলে মন্তব্য করেন।
বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, বাংলাদেশের সাংবাদিকরা নানা নিরাপত্তা ঝুঁকি নিয়ে পেশাগত দায়িত্ব পালন করেন। একদিকে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনসহ নানা কালাকানুনের খড়গ, অন্যদিকে প্রভাবশালীদের মামলা-হামলার হুমকি। এমন প্রতিকূল পরিবেশে স্বাধীন ও মুক্ত সাংবাদিকতা কঠিন চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে। এ অবস্থায় রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তির সাংবাদিকদের নিয়ে অসংলগ্ন ও অশোভন বক্তব্য গোটা সাংবাদিক সমাজকে আহত করেছে।
নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, ‘কোনো সংবাদ অসত্য ও ভিত্তিহীন হলে তার প্রতিবাদ জানানোর প্রাতিষ্ঠানিক নিয়ম আছে। কিন্তু পররাষ্ট্রমন্ত্রী সে পথে হাঁটার ধার ধারেননি। তাছাড়া অসংলগ্ন মন্তব্য করে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইতোপূর্বে একাধিকবার সমালোচনার মুখে পড়েছিলেন। কিন্তু প্রতিবারই নির্লজ্জভাবে গণমাধ্যমের ওপর দায় চাপিয়ে নিজেকে রক্ষার অপচেষ্টা করেছেন।’বিজ্ঞপ্তি।

 

Lab Scan