সশস্ত্র গোষ্ঠীর হামলায় ৭ পাকিস্তানি সেনা নিহত

0

লোকসমাজ ডেস্ক॥ পাকিস্তানের বেলুচিস্তানে সশস্ত্র গোষ্ঠীর হামলায় অন্তত ৭ সেনা সদস্য নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার পাকিস্তানের এক শীর্ষ কর্মকর্তা এই নিহতের কথা জানান। এ হামলার দায় স্বীকার করেছে বালুচ লিবারেশন আর্মি বা বিএলএফ। সেনা সদস্যদের পাল্টা হামলায় বিএলএফের ১৩ সদস্য নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছেন ওই পাক কর্মকর্তা। এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।
খবরে জানানো হয়, বুধবার রাতভর এসব হামলার ঘটনা ঘটে। পাকিস্তানের এই প্রদেশটিতে ব্যাপক বিনিয়োগ করেছে চীন। উইন্টার অলিম্পিকের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দিতে চীনে যাচ্ছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। সেখানে তার সঙ্গে চীনের প্রেসিডেন্ট সি চিন পিংয়ের বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে।
কিন্তু ইমরান খান চীনে যাওয়ার কয়েক ঘণ্টা আগে এ হামলার ঘটনা ঘটল। এ হামলার পর একটি ভিডিও বিবৃতি দিয়েছেন দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ রাশিদ। তিনি বলেন, আমাদের সেনারা হামলার পাল্টা জবাব দিয়েছেন। ৭ সেনা ও সশস্ত্র গোষ্ঠীর ১৩ সদস্য নিহত হয়েছেন। সেখানে আরও চার–পাঁচজন সশস্ত্র সদস্য রয়েছেন তাদের মোকাবিলা করবেন সেনারা।
তবে হতাহতের সংখ্যা নিয়ে ভিন্ন দাবি করেছে বিএলএফ। তাদের দাবি, এ হামলায় শতাধিক পাক সেনা নিহত হয়েছে। এ নিয়ে প্রেস বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে তারা। এতে বলা হয়েছে, বেলুচিস্তানের পাঞ্জগুর ও নুশকি সামরিক ঘাটি দখল করে নিয়েছে তারা। পাক সেনাদের অবস্থান টার্গেট করে সেখানে আত্মঘাতী বোমা হামলা চালানো হয়েছে। বিস্ফোরকভর্তি গাড়িও ছিল। এর মাধ্যমেই পাকিস্তানি সেনাদের হত্যা করা হয়েছে বলে জানানো হয়েছে। পাকিস্তানকে দখলদার রাষ্ট্র হিসেবে উল্লেখ করে বিএলএফ আরও দাবি করেছে যে, ক্যাম্পগুলোর দখল নিতে অতিরিক্ত সেনা মোতায়েন করেছে পাকিস্তান। কিন্তু তারপরেও বিএলএফের অবস্থান সরাতে পারেনি তারা। পাকিস্তানের আইএসপিআর যে দাবি করছে তা মিথ্যা এবং এখনো লড়াই চলছে বলেও দাবি করেছে গোষ্ঠীটি।
উল্লেখ্য, এর আগে বেলুচিস্তানের আরেক শহর গোয়াদারে হামলা চালানো হয়। ওই হামলায় ১০ পাকিস্তানি সেনা নিহত হয়েছিল।

Lab Scan